২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

স্বাস্থ্য খাতকে প্রাধান্য দিয়ে কৌশল প্রণয়নে কার্যকর ভূমিকা রাখুন


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের সমস্যা মোকাবেলায় স্বাস্থ্য খাতকে প্রাধান্য দিয়ে কৌশল প্রণয়নে সকলকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, এ লক্ষ্যে আগামী ডিসেম্বরে প্যারিসে অনুষ্ঠেয় প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে এখাতে আর্থিক ও প্রযুক্তিগত সহায়তা বাড়ানোর ওপর গুরুত্ব দিতে হবে।

বুধবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ৬৮তম সম্মেলনে ‘জলবায়ু ও স্বাস্থ্য শীর্ষক’ এক টেকনিক্যাল ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এই আহ্বান জানান। জেনেভার জাতিসংঘ ভবনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ক্ষতির শিকারের সম্মুখীন একটি দেশ। বৈশ্বিক জলবায়ু ঝুঁকি সূচকেও বাংলাদেশকে সর্বোচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। যদিও বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশসহ অনেক অনুন্নত দেশের কোন ভূমিকাই নেই। ইতোমধ্যে সব রকমের চরমভাবাপন্ন আবহাওয়ার প্রভাব বাংলাদেশে পড়তে শুরু করেছে। বর্ষা মৌসুমে কম বৃষ্টি, শীতকালে শীত না পড়া, গ্রীষ্মকালে ভয়াবহ তাপমাত্রা বৃদ্ধির মতো আবহাওয়ার অনিয়মিত ও অস্বাভাবিক প্রকৃতি বাংলাদেশকে মোকাবেলা করতে হচ্ছে। ফলে, নদী ও জলাশয় শুকিয়ে যাচ্ছে যা জমির উর্বরতা কমিয়ে দিচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন নতুন রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটাচ্ছে।

তিনি বলেন, জলবায়ুর অস্বাভাবিক পরিবর্তনের ফলে এই শতাব্দীর মধ্যে সমুদ্রপৃষ্ঠ এক মিটার বৃদ্ধি পেয়ে বাংলাদেশের ১৭ শতাংশ জমি তলিয়ে যাবে এবং জনসংখ্যার ঘনত্ব বর্তমানে ১ হাজার ১০০ থেকে বেড়ে ১ হাজার ৭৩৫ হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফলে পৃথিবীর বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন সম্পূর্ণ বিনষ্ট হবে। ৮ মিলিয়ন ঘরবাড়িসহ বিস্তীর্ণ রাস্তাঘাট, বিপুল শিল্প কারখানা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও হাসপাতাল পানিতে তলিয়ে যাবে।

মন্ত্রী বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তন সমস্যা মোকাবিলায় উপকূলীয় সতর্কতা এবং জনগণকে নিরাপদে অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার জন্য উন্নত ব্যবস্থাপনা প্রণয়ন, জলবায়ু ট্রাস্ট তহবিল গঠনসহ গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরে বলেন, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ এ সমস্যা এবং এ থেকে সৃষ্ট বিভিন্ন রোগ মোকাবেলায় নানামুখী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। বিশ্বব্যাপী সচেতনতা বাড়ানোর জন্য বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর হিসাবে প্রশংসিত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ সাম্প্রতিক সময়ে কয়েকটি প্রাকৃতিক ও মানবসৃষ্ট দুর্যোগ সফলভাবে মোকাবেলা করেছে।