১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

হাতে-কলমে মাঠে-ময়দানে মেয়েরা


সিনহাজ খাতুন কারিগরি (ভোকেশনাল) শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। বাবার নাম ইয়াসিন সেখ। বাড়ি সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নের বনবাড়িয়া গ্রামে। ইচ্ছা ছিল দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ বুয়েট থেকে পড়ালেখা করে দালান কোঠা নির্মাণের ইঞ্জিনিয়ার হবে। কিন্তু বাবার অর্থনৈতিক কারণে অঙ্কুরেই তা বিনষ্ট হয়েছে। তবে হাল ছাড়েনি সিনহাজ। কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে জ্ঞান অর্জন করেই সে দালান কোঠা নির্মাণের বাস্তব অভিজ্ঞতা অর্জন করতে চায়। হাতে কলমে শিক্ষা নিয়ে দক্ষ কর্মক্ষম হয়ে নিজেকে গড়ে তুলে দেশের উন্নয়নে শামিল হতে চায়। এ লক্ষ্য নিয়েই সিনহাজ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছাতিয়ানতলী-মোড়গ্রাম টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজের ভোকেশনাল স্কুল শাখায় দশম শ্রেণীতে সিভিল ট্রেড কোর্সে ভর্তি হয়ে পড়ালেখা করছে। কিভাবে প্রথম শ্রেণীর ইট পরীক্ষা করতে হয়, নির্মাণ কাজে ইট বালু এবং খোয়ার সংমিশ্রণের হার বা অনুপাত কেমন হবে তার বাস্তব জ্ঞান ইতোমধ্যেই কিশোরী সিনহাজ শিখেছে, যা সাধারণ জ্ঞানচর্চার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শেখানো হয় না।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছাতিয়ানতলী গ্রামের ইয়াসমিনও ভোকেশনাল স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। সে ভর্তি হয়েছে ড্রেস মেকিং ট্রেড কোর্সে। এটাকে দর্জিবিদ্যা বলা হয়। সাধারণত মেয়েরা এটা বেশি শেখে। তবে ট্রেড কোর্সে ভর্তি হয়ে দু’ বছর ক্লাস করে ড্রেস মেকিং শেখার প্রবণতা গ্রামাঞ্চলে খুবই কম।

-বাবু ইসলাম, সিরাজগঞ্জ থেকে