২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হবিগঞ্জের নিখোঁজ ৫ যুবক ইয়াবা ও নারীসহ র‌্যাবের হাতে আটক


নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ১৫ মে ॥ কোন দুর্বৃত্ত নয় বরং র‌্যাব সদস্যরাই মাইক্রোচালকসহ হবিগঞ্জের পাঁচ যুবককে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ও এক নারীসহ আটক করেছে। র‌্যাব-১৪ এর স্কোয়াডন কমান্ডার এএসপি আবু সায়িদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর মাধ্যমে নিখোঁজ যুবকদের নিয়ে হবিগঞ্জের সর্বত্র বয়ে যাওয়া আলোচনার ঝড়ের যেমন অবসান হলো, তেমনি পরিবারগুলোতেও স্বস্তি নেমে এসেছে। র‌্যাব জানায়, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত থেকে ফেরার পথিমধ্যে বৃহস্পতিবার ভোর ৪টার দিকে সিলেট-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বি-বাড়িয়া জেলাধীন কুটি-চৌমহনী এলাকা থেকে ওই মাইক্রোচালক এবং অন্য পাঁচ যুবককে ২ হাজার ৭শ পিস ইয়াবা ও এক নারীসহ আটক করে। এরা হলো মোঃ সাগর (২৬), মোঃ ইয়াছিন আরাফাত (২৫), মোঃ সামছু মিয়া (২৬), মোঃ পাবেল মিয়া (২২), মোঃ মোস্তফা আহম্মেদ (৩৫) ও জেসমিন আক্তার (২৫)। র‌্যাব জানায়, এদিন দুপুরেই আটককৃতদেরকে কসবা থানায় সোর্পদ করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশ তাদের সকলকেই আদালতে হাজির করলে আদালত তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করে। আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের ধারণা, এরা হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলাধীন পাহাড়ঘেরা শাহজিবাজার এলাকার একটি সংঘবদ্ধ ইয়াবা পাচারকারী দল। প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার থেকে মাছের ট্রলারে করে বাংলাদেশের কক্সবাজার টেকনাফে নিয়ে আসা হয় ইয়াবা চালান। পরবর্তীতে এই ইয়াবা পাচারকারীরা হবিগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বেড়ানোর কথা বলে শনিবার হবিগঞ্জ শহরের পিটিটিআই সড়কস্থ এলাকা থেকে একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে জনৈক পাবেলসহ কয়েক যুবক অন্যত্র পাড়ি জমায়। কিন্তু ওইসব যুবকদের পরিবার ও হবিগঞ্জ মাইক্রোবাস শ্রমিক নেতারা তখন মিডিয়াসহ আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাকে জানান, ওইসব যুবক ও চালককে র‌্যাবের পোশাক পরিহিত একদল দুর্বৃত্ত আটক করে নিয়ে যায়। এরপর থেকে এদের নিখোঁজ বলে দাবি করে সংশ্লিষ্ট পরিবারগুলো ও শ্রমিক নেতারা।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: