২৪ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিক্ষিত মায়ের সন্তানও স্বাস্থ্যবান


শিক্ষিত মায়ের সন্তানও স্বাস্থ্যবান

বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য সচেতন, শিক্ষিত এবং মাতৃত্বকালীন পরিচর্যায় থাকেন যে মায়েরা তারা সবাই স্বাস্থ্যবান শিশুর জন্ম দেন। অবাক হওয়ার বিষয় হলো, এমন মায়েদের শিশুরা প্রায় একই ওজনের এবং আকারের হয়ে থাকে। তাহলে বলাই যায়, শিক্ষিত মায়ের সন্তানও স্বাস্থ্যবান। অক্সফোর্ডের একদল গবেষক কিন্তু সেকথাই বলছেন।

মোট আটটি দেশের মায়েদের ওপর গবেষণা করে এ তথ্য দিয়েছেন অক্সফোর্ডের একদল গবেষক। অন্যদিকে, সমাজ-সংস্কৃতির ওপর ভিত্তি করে নয় বরং স্বাস্থ্যহানির শিকার মায়েরা অস্বাস্থ্যকর ভ্রƒণ এবং প্রায় একই ওজনের শিশুর জন্ম দেন। মাতৃগর্ভে শিশুদের বেড়ে ওঠা এবং তাদের আকার গোটা পৃথিবীজুড়ে একইরকম হয়ে থাকে।

তাই জন্মের সময় প্রতিটি শিশুর একই ধরনের স্বাস্থ্য এবং আকার প্রায় নিশ্চিত করা যায় মায়ের পরিচর্যার মাধ্যমে, জানান ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ডের নাফিল্ড ডিপার্টমেন্ট অব অবসটেট্রিকস এ্যান্ড গায়নেকোলজির প্রফেসর জোসে ভিলার। তিনি বলেন, শিক্ষিত নারী মা হওয়ার আগে যদি তাকে সঠিক পরিমাণে পুষ্টির যোগান দেয়া হয় এবং প্রয়োজনীয় পরিচর্যা করা হয় তবে সবার শিশু একইরকম হবে। গবেষণায় অংশ নেয়া নারীদের মধ্যে ৪ শতাংশের ক্ষেত্রে শিশুর ভ্রƒণের বৃদ্ধির ক্ষেত্রে ভিন্নতা দেখা দিয়েছে। এ গবেষণাসংক্রান্ত প্রতিবেদনটি ‘দ্য ল্যানসেট, ডায়াবেটিস এ্যান্ড এন্ডোক্রাইনোলজি’-তে প্রকাশিত হয়েছে।

জন্মের সময় এদের সুস্বাস্থ্য নির্ভর করে মায়ের পরিচর্যার ওপর। ব্রাজিল, চীন, ভারত, ইতালি, ওমান, ব্রিটেন এবং আমেরিকার শহর ও গ্রাম মিলিয়ে বিভিন্ন এলাকা বেছে নেয়া হয়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক দল গবেষক ৬০ হাজার গর্ভবতী মায়ের ওপর এ গবেষণা পরিচালিত করেন। নতুন এ গবেষণায় দেখা গেছে, মায়েদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও মাতৃত্বকালীন পরিচর্যার ফলে শিশু সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হয়। একই সঙ্গে ভবিষ্যতের জন্যেও তাদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তা থাকে সুনিশ্চিত।

-সূত্র : অনলাইন।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: