২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বাউফলে ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে জামায়াতী এনজিও লাপাত্তা


নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ১১ মে ॥ বাউফলে আরডিপি নামের জামায়াতের একটি এনজিও অধিক মুনাফার লোভ দেখিয়ে ৪ হাজারেরও বেশি গ্রাহকের কাছ থেকে ৫০ কোটি টাকার অধিক হাতিয়ে নিয়ে এনজিওটির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা লাপাত্তা হয়ে গেছেন। এনজিওটির কার্যালয় এখন তালাবদ্ধ। কয়েক দিন আগে ওই এনজিওর গলাচিপা ও পটুয়াখালীর সদর কার্যালয় কর্মকর্তারা আমানতকারীদের প্রায় অর্ধশত কোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা হয়ে গেছেন। আর এসব টাকা ফেরত পেতে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন আমানতকারীরা। তারা রাজনৈতিক নেতা ও প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরে ঘুরেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না।

জানা গেছে, ২০০৯ সালে বাউফল শহরের সৌদিয়া মার্কেটের তিনতলায় আরডিপি নামের একটি এনজিও তাদের কার্যক্রম শুরু করে। বাউফল পৌর জামায়াতের আমিরের ভাই ওই এনজিওর চেয়ারম্যান। প্রথমপর্যায়ে কয়েক মাস আমানতকারীদের মাসিক মুনাফা দেয়া হলেও পরে তা বন্ধ করে দেয় কর্তপক্ষ। এরপরই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে ওই এনজিওর কয়েক হাজার সদস্য। প্রতিদিন তারা সঞ্চিত টাকা ফেরত পেতে আরডিপির কার্যালয়ে ভিড় করে। কিন্তু টাকা ফেরত পাননি। একপর্যায়ে গ্রাহকের চাপ বেড়ে যাওয়ায় এনজিওটির বাউফল কার্যালয়ে কর্মকর্ত কর্মচারীরা লাপাত্তা হয়ে যায়। ওই এনজিওর সহকারী মার্কেটিং অফিসার (এএমও) নজরুল ইসলাম জানান, ওই এনজিওতে চাকরি করার সুবাদে তিনি ২০১৩ সালে নিজে ১৩ লাখ ও ঘনিষ্ঠ লোকদের কাছ থেকে ২৭ লাখসহ মোট ৪০ লাখ টাকা সংগ্রহ করে আমানত রেখে ছিলেন। তাকে গত বছর নবেম্বর মাসে অগ্রণী ব্যাংক পুরান বাজার শাখার (হিসাব নং ২১১৬) অনুকূলে এরিয়া হেড আলমগীর হোসেন ও ব্রাঞ্চ ম্যানেজার ফারুক হোসেন স্বাক্ষরিত তিন লাখ টাকার একটি চেক দেয়া হয়। (চেক নং ০৪ এএফ/১৪৮৬৭৩৮) কিন্তু তিনি টাকা তুলতে গিয়ে দেখেন ওই হিসাবে কোন টাকা নেই।