২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মালয়েশিয়ায় আটক কুয়াকাটার চার যুবকের বাড়িতে আহাজারি


নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ১১ মে ॥ মানবপাচারের শিকার হয়ে কুয়াকাটার চার যুবক মালয়েশিয়ার জেলে আটক থাকায় তাদের পরিবারে চলছে আহাজারি। পরিবারগুলো চরম মানবেতর জীবনযাপন করছে, চলছে দুরবস্থা। পরিবারের উপার্জনক্ষম মানুষটি বিদেশে আটকে থাকায় এখন এদের দিন চলছে অর্ধাহারে-অনাহারে। অবৈধপথে পাচার হয়ে থাইল্যান্ডের জঙ্গলে তিন মাস থাই দালালদের বর্বর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে পালিয়ে মালায়েশিয়া পুলিশের হাতে আটক হয় আলমগীর, আল আমিন, মিরাজ ও বাহাদুর। তিন মাস নিরুদ্দেশ থাকার পর খবর মিললেও এখন এদের উদ্ধার করতে না পেরে এসব পরিবারের সদস্যরা মানবপাচারকারী দালাল চক্রের বাড়িতে ধরনা দিচ্ছেন। কিন্তু মানবপাচারকারী চক্রের স্থানীয় হোতা জাহাঙ্গীর ও জাকিরের অভিভাবক ও স্বজনরা এতে কর্ণপাত করছে না। ফেরতও দিচ্ছে না হাতিয়ে নেয়া টাকা।

আলমগীরের বাবা আব্দুল খালেক হাওলাদার ছেলের জন্য পাগলপ্রায়। তিনি বলেন, ‘আমার বাপেরে কত নির্যাতন করছে দালালরা, হ্যার কোন সীমা নাই। জেলখানায় ওরা ভাল নাই। কিভাবে যে ফিরাইয়া আনমু, জানি না। দালালরা পলাইয়া আছে। কোন টাকা-পয়সা দেয় না।’

আল আমিনের মা ও বাহাদুরের শাশুড়ি কোহিনূর বেগম কান্নাভেজা কণ্ঠে বলেন, ‘আমার বাপরা এহোনো বাইচ্চা আছে, আমি নিজে মালয়েশিয়ার সিরাজ মিয়ার সাথে কতা কইছি। আমার কইলজার ধনগো একটু আইন্যা দেন। দালালরা এত টাকা নেছে, কিছু টাহা ফেরত দেলেও আমার বাপগোরে আনতে পারি।’

বাহাদুরের স্ত্রী হামিদা বেগম বলেন, ‘আমরা গরিব, জাল সাবার বেইচ্চা দালালরা আমার স্বামীরে বিদেশ নেছে, কিভাবে হেরে আনমু জানি না। সরকারের সাহায্য চাই।’

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: