২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আবারও পেলের অস্ত্রোপচার!


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আবারও অস্ত্রোপচারের সামনে পড়েছেন ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে। ছুরির নিচে পড়তে হয়েছে পেলেকে। এবার মূত্রথলির একটি অংশ অস্ত্রোপচার করে বাদ দিতে হয়েছে। মূত্রে ইনফেকশন আটকাতেই এ অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সাও পাওলোর এ্যালবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে অস্ত্রোপচার করা হয় তার। আপাতত তিনি সুস্থ আছেন বলে খবর মিলেছে।

গত ছয় মাসে এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো হাসপাতালে ভর্তি হলেন সাবেক ব্রাজিলিয়ান এ তারকা ফুটবলার। এর আগে অস্ত্রোপচার করে কিডনি থেকে পাথর বের করা হয়েছিল পেলের। গত বছর নবেম্বরে মূত্রে ইনফেকশন দেখা দেয়। সেই থেকে চিকিৎসা চলছিল ৭৪ বছরের পেলের। ডিসেম্বরে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছিলেন তিনবার বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য পেলে।

পেলে এখন একটি কিডনি নিয়ে জীবন চালাচ্ছেন। ফুটবল ছাড়ার পর গত বছরের শেষদিকে পেলের কিডনিতে অস্ত্রোপচার করা হয়। বিশ্ব ফুটবলের সব সময়ের সেরা এ ফুটবলার ১৩৬৩ ম্যাচে ১২৮১ গোল করে বিশ্বরেকর্ড গড়েছিলেন। ২১ বছরের ক্যারিয়ারের ব্রাজিলের হয়ে ৯১ ম্যাচে ৭৭ গোল করেন। ফিফার ‘প্লেয়ার অব দ্য সেঞ্চুরি’ও নির্বাচিত হন পেলে। বিশ্বকাপের ১৪ ম্যাচ খেলে ১২ গোল করেন পেলে। ১৯৭০ সালে ফিফা গোল্ডেন বলও পেলের দখলেই যায়। এ ফুটবলার চলতি বছরটিতে শারীরিক অসুস্থতায় ভালভাবেই ভুগছেন। কিডনিতে অস্ত্রোপচারের পর এবার মূত্রেও ছুরির দাগ পড়ে পেলের। এর আগে যখন নবেম্বরে কিডনিতে পেলের অস্ত্রোপচার হয় তখন ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। অস্ত্রোপচারের দু’দিন পর এমন অবস্থাই হয়, সারা বিশ্বেই তার অসুস্থতা নিয়ে ঝড় ওঠে। এমনকি তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। নবেম্বরে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন পেলে। পেটের পীড়ায় ভুগতে থাকেন। সেই থেকে যেন তার শারীরিক অসুস্থতা দূরই হতে চাইছে না। ব্রাজিলের কিংবদন্তি ফুটবলার পেলে প্রথমবার গত বছর নবেম্বরে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তখন জানা গিয়েছিল, ব্রাজিলের সাবেক তারকা এ ফুটবলার পেটের পীড়ায় আক্রান্ত হয়ে সাও পাওলোর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। আর এ কারণে তিনি নিজের নামে গড়া সান্তোসের একটি জাদুঘরের অনুষ্ঠানে যেতে পারেননি। ৭৪ বছর বয়সী পেলে হঠাৎ করেই পেটের ব্যথায় আক্রান্ত হলে তাকে সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিডনিতে অপারেশন করানো হয়। এক সপ্তাহ পর বাড়িতে ফিরে যান পেলে। ছয় মাস না যেতেই আবারও পেলে অস্ত্রোপচারের জ্বালায় ভোগেন। এবার অবশ্য অসুস্থতা এত মারাত্মক নয়। পেলে পুরোপুরি সুস্থ আছেন বলেই জানা গেছে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: