২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সৈয়দপুর ও জামালপুরে ৩৭ বসতঘর পুড়ে ছাই


স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ অগ্নিকা-ে সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের ঠনঠনিপাড়া গ্রামে ৯টি পরিবারের ৩০টি পাকা-আধাপাকা টিন ও খড়ের ঘর, নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার, ধান-চাল, গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগিসহ সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এ আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যরা পরনের কাপড়-চোপড় ছাড়া কোন কিছুই বাঁচাতে পারেননি। আগুনে প্রায় ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবি করেছেন। বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে দিনযাপন করছেন।

গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, রাত আনুমানিক সোয়া একটার দিকে গ্রামের জিকরুল হকের বাড়ির রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে তা মুহূর্তের মধ্যে আশপাশের বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওমেদ আলী, ওয়াহেদ আলী, আজিজুল হক, মহিউদ্দিন, মেহেদী হাসান, আলহাজ আব্দুল গফুর, সুজা ও রেজাউল ইসলামের প্রায় ৩০টি পাকা-আধাপাকা টিন ও খড়ের ঘর নিমিষেই পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা জামালপুর থেকে জানান, বকশীগঞ্জে অগ্নিকা-ে ৭ বসতঘরসহ কয়েকটি গরু-ছাগল পুড়ে গেছে। বৃহস্পতিবার রাত দেড়টায় এই অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। বকশীগঞ্জ উপজেলার বাট্টাজোড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মুন্নাফ জানান, বাট্টাজোড় পূর্বপাড়া গ্রামের খোকা মিয়া নামে এক ব্যক্তির গোয়ালঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত। মুহূর্তের মধ্যে আগুন চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। এতে বাট্টাজোড় ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি আব্দুল মোতালেবেরসহ খোকা মিয়া, তারা মিয়া, ময়না মিয়া, আব্দুস সামাদ, আখের উদ্দীনের মোট ৭টি বসতঘর, ঘরে রক্ষিত টাকাপয়সা, ধানচাল, স্বর্ণালঙ্কার, আসবাবপত্র, কাপড়চোপড়সহ যাবতীয় মালামাল, ৪টি গরু ও ৫টি ছাগল পুড়ে যায়।