২১ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কৃষি এখন প্রযুক্তি নির্ভর ॥ ঘটছে উৎপাদন বিপ্লব


স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ এক সময় অভাব বা মঙ্গাকবলিত এলাকার হিসেবে পরিচিত রংপুর কৃষি অঞ্চলের বাস্তব চিত্র এখন পাল্টে গেছে। বর্তমান সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকল্পে ই-কৃষি এখন কৃষকদের ঘরে ঘরে প্রবেশ করেছে। উত্তরের আট জেলার গ্রামে গ্রামে কৃষকরা আধুনিকতার ছোঁয়ায় কৃষিতে বিপ্লব ঘটিয়ে অর্থনৈতিক সাফল্য বয়ে এনেছে। পতিত জমি বলতে এখন কিছু নেই। বারো মাসেই নদীর চর থেকে পতিত জমিগুলো ফসলে ফসলে ভরে উঠছে।

লাঙল দিয়ে জমিতে হাল চাষ, মই দেয়া, কামলা দিয়ে ফসল কাটা ও মাড়াইরে মতো কাজে এখন আধুনিকতা ছোঁয়া লেগেছে। এগিয়ে যাচ্ছে আজকের কৃষক-আগামীর কৃষক ই-কৃষক। আধুনিক কৃষি প্রযুক্তির সুফল পেতে শুরু করেছে উত্তরের আট জেলার কৃষকরা। এক সময় গম ও ধান কাটা মাড়াইয়ের জন্য কাস্তেই ছিল প্রধান ভরসা। এখন বদলে গেছে সে দৃশ্যপট। মাঠে মাঠে এখন পৌঁছে গেছে গম ও ধান কাটা ও মাড়াই যন্ত্র। যা কৃষকদের কাছেও গম ও ধান কাটাই ও মাড়াই মেশিন রিপার ও হপার জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এ ছাড়া ট্রাক্টর দিয়ে জমিতে হাল ও মই চাষ অনেক আগেই শুরু হয়েছে। এবার যন্ত্রের সাহায্যে গম ও ধান কাটা ও মাড়াই কাজে সময় এবং খরচ দুই কমছে কৃষকের। মুহূর্তেই প্রচুর পরিমাণ ফসল কাটাই ও মাড়াই করা যাচ্ছে।

প্রযুক্তির ধারায় বাংলাদেশের কৃষি খাত অত্যন্ত দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের কৃষি খাতের উন্নয়নের জন্য নতুন নতুন প্রযুক্তি ও জ্ঞানের ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশে ইতোমধ্যে খাদ্যে নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে। নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে আমরা আন্তর্জাতিক বাজারে চাল, আলুসহ অন্যান্য কৃষিজাত পণ্য রফতানিও করছি। এদেশ থেকে ভাল মানের অর্গানিক শাক-সবজি ও ফলমূল ইতোমধ্যে আন্তর্জাতিক বাজারে রফতানি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে নীলফামারী কৃষি বিভাগের উপ সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মহসিন রেজা রূপম জানান, রিপার ও হপার যন্ত্রের সুবিধায় কৃষকরা প্রযুক্তিগত দিক থেকে এগিয়ে গেছে। তারা গম ও ধান সহজে কাটাই মাড়াই করতে পারছে। কম সময়ে বেশি ফসল কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য দুর্যোগের সময় ফসল রক্ষা পায়। রিপার ও হপার মেশিন কৃষি শ্রমিক সঙ্কট দূর করছে।