১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আলিয়া মাদ্রাসা নয়, কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠ


বাংলানিউজ ॥ দেরিতে হলেও নড়েচড়ে বসলো কারা অধিদফতর। বছর পাঁচেক ধরে তাদের মাঠকে যে ‘আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ’ হিসেবে প্রচার করা হচ্ছিল তা নিয়ে তীব্র আপত্তি তুলল তারা। মঙ্গলবার কারা মহাপরিদর্শকের পক্ষে অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক ফজলুল কবীর স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এই আপত্তি তোলা হয়। একই সঙ্গে আহবান জানানো হয় প্রকৃত নাম ‘কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠ’ প্রচারের।

কারা অধিদফতরের এই আপত্তির মুখে জানা গেল-বিডিআর বিদ্রোহ মামলা আর বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার দুই দুর্নীতি মামলার বিচারকার্যের জন্য যেখানে বিশেষ আদালত বসানো হয় সেই জায়গার মালিক কারা অধিদফতর। কিন্তু কি পত্র-পত্রিকা, কি অনলাইন, কি টেলিভিশন-রেডিও সব সংবাদ আর সামাজিক মাধ্যমে ‘আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ’ হিসেবেই প্রচার ও প্রকাশ করা হচ্ছিল ওই ভ্যেনুর নাম।

এমনকি সরকারী-বেসরকারী অফিস আর অন্য আদালতগুলোতেও আলিয়া মাদ্রাসা মাঠ নামেই পরিচিতি পাচ্ছিল ‘কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠ’। শেষ পর্যন্ত তাই চিঠি দিয়েই সবাইকে ভুল সংশোধনের আহবান জানালো কারা কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবারের চিঠিতে তারা ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া এবং বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানকে প্রকৃত নাম মুদ্রণ, লিখন, প্রকাশ ও প্রচারের অনুরোধ জানায়।

চিঠিতে আরও বলা হয়, বকশীবাজারের বিশেষ আদালতটি কারা অধিদফতরের নিজস্ব জমিতে স্থাপিত। যুগ যুগ ধরে মাঠটি কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ওই মাঠের কর, খাজনাও কারা কর্তৃপক্ষ পরিশোধ করে আসছে। তাই বিভ্রান্তি এড়াতে মাঠটির প্রকৃত নাম প্রচার ও প্রকাশ করা হোক।

এ চিঠির অনুলিপি দেয়া হয় প্রধান বিচারপতি, এটর্নি জেনারেল, মুখ্য মহানগর হাকিমের কার্যালয়, জেলা ও দায়রা জজ আদালত, বিশেষ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক এবং মন্ত্রিপরিষদ, স্বরাষ্ট্র, আইন ও ভূমি মন্ত্রণায়সহ বিভিন্ন সরকারী দফতর ও মিডিয়া হাউসে।