১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনের প্রেক্ষিতে প্রধান শিক্ষক আটক


নিজস্ব সংবাদদাতা,ভাঙ্গা,ফরিদপুর ॥ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার কালামৃধা গোবিন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় দুই হাজার ছাত্র-ছাত্রীর ক্লাস বর্জন,মানববন্ধন ও অবরোধের মুখে আজ দুপুরে প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করেছে বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটি। এবং এরপর লম্পট শিক্ষককে আটক করে থানায় নিয়ে আসে ভাঙ্গা থানা পুলিশ। এ ব্যাপারে ওসি নাজমুল ইসলাম বলেন, বিদ্যালয় কতৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনের প্রেক্ষিতে লম্পট মাষ্টারকে বরখাস্ত করেছে। পর্নগ্রাফি আইনে তার বিরুদ্ধে একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সংস্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়,কালামৃধা গোবিন্দ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আলমগীর হোসেন ৩ বছর পুর্বে বিদ্যালয়টিতে যোগদান করে। যোগদানের পর থেকেই তিনি বিভিন্ন দূর্নীতি শুরু করেন। প্রতিবারই সে মুচেলেকা দিয়ে মাফ পেয়ে গেছেন। কিন্তু এতে ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে চাপা ক্ষোপ বিরাজ করছিল। প্রায় শতাধিক ছাত্রী অভিযোগ করে বলে, স্যার ছাত্রীদের পাশে বসে গায়ে হাত দিত। অনেককে ক্লাসের পরে তার সাথে দেখা করতে বলত। প্রধান শিক্ষক হওযায় কেউ তার বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পেত না। গত শনিবার

এই লম্পট তার অধিনস্ত শিক্ষক দেব কুমুরের স্ত্রীর নগ্নছবি তার মোবাইলে ধারন করে এবং গোসল পরবর্তী কাপড় বদলানোর নগ্ন দৃশ্য মোবাইলে ভিডিও করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে লম্পট শিক্ষকের বিরুদ্ধে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এমনকি ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকগন রাস্তায় নেমে আসে।

এদিকে ভিকটিমের স্বামী সহকারী শিক্ষক দেব উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আচ দুপুরে ওসি এবং মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় প্রায় ৩ হাজার জনতা প্রধান শিক্ষকের শাস্তি চেয়ে মিছিল করে। এ সময় বিদ্যালয়ের সভাপতি এক জরুরী সভা ডেকে প্রধান শিক্ষককে বরখাস্ত করেন। সভাস্থলে ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আলমগীর হোসেন, ওসি মোঃ নাজমুল ইসলাম, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ,এলাকার মেম্বর,বাজার কমিটির সভাপতি,সাধারন সম্পাদক,সাংবাদিক ও এলাকার মুরুব্বিগন। অতপর লম্পট আলমগীর মাষ্টারকে আটক করে নিয়ে আসে ভাঙ্গা থানা পুলিশ।