১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

‘দ্য বব্‌স’ পুরস্কার পেলেন মুক্তমনা ব্লগের বন্যা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ ডয়চে ভেলের ‘দ্য বব্‌স’- সেরা অনলাইন অ্যাক্টিভিজম’ পুরষ্কার পেলেন রাফিদা আহমেদ বন্যা। মুক্তমনা ব্লগের জন্য তিনি এই পুরষ্কারের ‘সামাজিক পরিবর্তন’ বিভাগে জুরি অ্যাওয়ার্ড জয় করেন।

শনিবার জার্মানির রাজধানী বার্লিনে এক বৈঠকে ডয়চে ভেলের ‘দ্য বব‌্স- সেরা অনলাইন অ্যাক্টিভিজম’ অ্যাওয়ার্ডের ১১তম আসরের পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন জুরিমণ্ডলী। আগামী জুন মাসে বন শহরে অনুষ্ঠিতব্য গ্লোবাল মিডিয়া ফোরামে এক অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, রাফিদা আহমেদ বন্যার স্বামী অভিজিৎ রায় মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা। ২০১৫ সালের অমর একুশে গ্রন্থমেলা চলাকালীন সময় ২৬ ফেব্রুয়ারি মেলা থেকে বেরিয়ে আসার কিছু পরই বন্যার স্বামী অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এসময় গুরুতর আহত হন বন্যাও। ঘটনার পরপরই নিশ্চুপ থাকবেন না জানিয়ে স্বামীর অসমাপ্ত কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন বন্যা।

পুরষ্কারের বিষয়ে ডয়চে ভেলের দ্য বব‌্স জুরিমন্ডলীর সদস্য প্রখ্যাত আলোকচিত্রী শহিদুল আলম বলেন, উগ্র ইসলামপন্থিরা বাংলাদেশকে তাঁর ধর্মনিরপেক্ষ নীতি থেকে সরিয়ে নিতে চাচ্ছে। অভিজিৎ এবং আহমেদের মতো ব্লগাররা সেটা ঠেকানোরই চেষ্টা করছেন।

এদিকে, মুক্তমনা টিমের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়, ডয়চে ভেলের অত্যন্ত সম্মানজনক অনলাইন অ্যাক্টিভিজম অ্যাওয়ার্ড ‘দ্য বব‌্স’ পাওয়ায় আমরা অত্যন্ত আনন্দিত এবং গর্বিত৷ যাঁরা মুক্তমনাকে এই পুরস্কারের জন্য মনোনিত করেছেন, তাঁদের সবার প্রতি আমাদের আন্তরিক ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা রইলো।

বিবৃতিতে আরও লেখা হয়, একটি ধর্মনিরপেক্ষ, অসাম্প্রদায়িক এবং বিজ্ঞানমুখী সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য, একটি উদার, প্রগতিশীল এবং বিজ্ঞানমনষ্ক প্রজন্ম গড়ে তোলার জন্য মুক্তমনা অনলাইনে বাংলাভাষী জনগোষ্ঠীর মধ্যে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে গত ১৪ বছর ধরে। এই পুরস্কার আমাদের সেই অক্লান্ত পরিশ্রমেরই স্বীকৃতি।

এছাড়া জীবন বাজি রেখে ধর্মীয় মৌলবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রামরত বাংলাদেশের ব্লগাররা, মেক্সিকোয় অনলাইনে গোপনীয়তা বজায় রাখার উপায় বের করা হ্যাকাররা এবং জীবন বাঁচাতে ছুটে চলা একজন সিরিয়ার শরণার্থী ডয়চে ভেলের দ্য বব‌্স প্রতিযোগিতার জুরি অ্যাওয়ার্ড জয় করেছে।

প্রতি বছর বিশ্বজুড়ে প্রায় ৩০ হাজার ভোটার ইন্টারনেটে প্রায় ৪ হাজার আটশ’ ওয়েবসাইটের মধ্যে থেকে ভোটের মাধ্যমে বেছে নেয় সেরা পুরষ্কারপ্রাপ্তদের প্রাথমিক তালিকা। এর পরবর্তীতে বিচারক প্যানেলের যাচাই-বাছাই শেষে চূড়ান্তভাবে ঘোষণা করা হয় বব‌্স পুরষ্কারপ্রাপ্তদের নাম।

এদিকে, চলতি বছর দ্য বব‌্স প্রতিযোগিতায় ‘জুরি অ্যাওয়ার্ড’ ছাড়াও বাক স্বাধীনতা অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয়েছে। সৌদি আরবে কারাবন্দি ব্লগার রাইফ বাদাউয়ি ডয়চে ভেলের প্রথম বাকস্বাধীনতা বা মত প্রকাশের স্বাধীনতা অ্যাওয়ার্ডটি পেয়েছেন।

‘ডিডাব্লিউ – মত প্রকাশের স্বাধীনতা’ অ্যাওয়ার্ডের বিজয়ী নির্ধারণ করেছেন ডয়চে ভেলের পরিচালকমণ্ডলী। প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক পেটার লিমবুর্গ এই বিষয়ে বলেন, ডয়চে ভেলের পরিচালকমণ্ডলীর সকলেই রাইফ বাদাউয়ির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, বাকস্বাধীনতার মতো একটি মানবিক এবং মৌলিক অধিকারের পক্ষে অত্যন্ত সাহসী এবং নির্ভীক অবস্থান নিয়েছেন বাদাউয়ি। আমাদের অ্যাওয়ার্ডটি একটি বার্তা দিচ্ছে এবং তাঁর পরিণতির প্রতি জনগণের দৃষ্টিনিবন্ধ করছে। আমারা আশা করছি, এটা সৌদি কর্তৃপক্ষের উপর বাদাউয়িকে ছেড়ে দিতে চাপ বাড়াবে।

বাংলা ভাষাভিত্তিক বিভাগে দ্য বব‌্স-এর ‘পিপল’স চয়েস অ্যাওয়ার্ড’-টি জয় করেছে টুনস ম্যাগাজিন। কার্টুনিস্ট আরিফুর রহমান ম্যাগাজিনটির প্রকাশক৷ ২০০৭ সালে একটি কার্টুনকে কেন্দ্র করে গ্রেপ্তার এবং কারাভোগ করেন তিনি। বর্তমানে নরওয়েতে অবস্থান করে বাকস্বাধীনতার চর্চা করছেন ব্লগার আরিফ।