১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ময়মনসিংহে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের সংঘর্ষ ॥ গুলিবিদ্ধ ১ আটক ৮


স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ ॥ ময়মনসিংহের পুরনো ব্রহ্মপুত্রের কাচারি ফেরিঘাট এলাকায় বালু মহালের আধিপত্য ও কর্তৃত্ব নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। ইতোমধ্যে সরকার সমর্থিত প্রভাবশালী দু’টি মহলের মধ্যে এ নিয়ে বিরোধ চরমে উঠেছে। পাল্টাপাল্টি হামলা ও ভাংচুর তা-বসহ শহরে গুলিবর্ষণের ঘটনায় এই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিরোধের জেরে পুলিশের উপস্থিতিতে শনিবার দুপুরে শহরের আকুয়া এলাকায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের মধ্যে সংঘর্ষ, হামলা, ভাংচুর ও গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এসময় মোস্তফা (৩৫) নামে এক বালু শ্রমিক মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে শহরের কাচারি ফেরিঘাট এলাকায় ‘হিমু আড্ডা’ রেস্তরাঁয় হামলা ও ভাংচুরের ঘটনার জেরে শহরে যাত্রীবাহী বাসসহ বেশ কয়েকটি যানবাহন ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাতে পরিবহন শ্রমিকরা শহরের পাটগুদাম ব্রহ্মপুত্র ব্রিজ মোড়ে যানবাহন এলোপাতাড়ি রেখে সড়ক অবরোধ করে। এতে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে বৃহত্তর ময়মনসিংহের সড়ক যোগাযোগ প্রায় দুই ঘণ্টা বন্ধ ছিল।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শনিবার দুপুরে শহরের আকুয়া মোড়লপাড়া এলাকায় যুবলীগ নেতা শাহনুরের বাসায় হামলা ও ভাংচুরসহ গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটে। অভিযোগ ছাত্রলীগের উসানের নেতৃত্বে এই হামলা চালানো হয়। মসজিদের মাইকে এই হামলার খবর ছড়িয়ে শাহনুরের সমর্থকরা জড়ো হয়ে পাল্টা জবাব দিতে গেলে দুইপক্ষ পুলিশের সামনেই সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় মোস্তফা নামে এক বালু শ্রমিক গুলিবিদ্ধ হলে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যালে ভর্তির পর ঢাকায় পাঠানো হয়। সংঘর্ষ চলাকালে শাহনুরের বাসায় পেট্রোল বোমা হামলাসহ ছালাম সরকারের বাসাতেও হামলা ও ভাংচুর করা হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: