১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ভবন হেলে প২০ মের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ ড়া


বিশেষ প্রতিনিধি ॥ সম্প্রতি ভূমিকম্পে রাজধানীতে আটটি ভবনের হেলে পড়ার কারণ অনুসন্ধান, ক্ষয়ক্ষতি ও দায়-দায়িত্ব নিরূপণ করে আগামী ২০ মের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের অনুরোধ করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। এ ছাড়া আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিল্ডিং কোড আইন চূড়ান্ত করতে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে। পাশাপাশি স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে বছরে দুবার প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক মহড়া অনুষ্ঠানের জন্য শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জাতীয় ভূমিকম্প প্রস্তুতি ও সচেতনতা কমিটির সভায় এই অনুরোধ জানানো হয়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার সভাপতিত্বে সভায় সচিব মোঃ শাহ্ কামাল, স্থানীয় সরকার, গণপূর্ত, রাজউক, শিক্ষা, প্রাথমিক শিক্ষা, আবহাওয়া অধিদফতর এবং সিটি কর্পোরেশন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের প্রতিনিধিসহ অন্য সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ শাহ্ কামাল সাংবাদিকদের বলেন, সাম্প্রতিক ভূমিকম্পে রাজধানীতে আটটি ভবন হেলে পড়ার কারণ, ক্ষয়ক্ষতি ও দায়দায়িত্ব নিরূপণ করে ২০ মে’র মধ্যে একটি পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন উপস্থাপন করে কমিটিকে অবহিত করতে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে। এছাড়া দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন, মসজিদ, মার্কেট ইত্যাদি স্থাপনের একটি নিরীক্ষা স্ব স্ব মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে করার জন্যও সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করা হয়।

স্কুল ও কলেজ পর্যায়ে বছরে দুবার প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ক মহড়া অনুষ্ঠানের জন্য শিক্ষা এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়। এছাড়া উপকূলীয় এলাকায় যেসব লোকদের ঘূর্ণিঝড় বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে তাদের ভূমিকম্প বিষয়েও প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।

সভায় বিল্ডিংকোড আপডেট করা এবং তা বাস্তবায়নে কঠোর অবস্থান নেয়ার জন্য রাজউক ও সিটি কর্পোরেশনকে অনুরোধ করা হয়। বিশেষত ঝুঁকিপূর্ণ ভবন বিশেষ রং দিয়ে চিহ্নিত করে তাতে ‘ঝুঁকিপূর্ণ ভবন’ সংবলিত সাইনবোর্ড টানিয়ে দিতে এ দুটি সংস্থাকে নির্দেশ দেয়া হয়। সরকারী পুরাতন মেডিক্যাল কলেজগুলো জরুরী ভিত্তিতে রিট্রোফিটিং করার ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য গণপূর্ত মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়।