১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ওয়ার্নিং নিয়ে মাহি


আগামীকাল মাহিয়া মাহি সাফি উদ্দিন সাফি পরিচালিত ‘ওয়ার্নিং’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে দর্শকের সামনে হাজির হচ্ছেন। এই চলচ্চিত্রে আবারও মাহি একজন সাংবাদিকের চরিত্রে অভিনয় করেছেন। বিস্তারিত

লিখেছেন অভি মঈনুদ্দীন

‘আমি শুধু এতটুকুই বলব সাম্প্রতিককালে আমার অভিনীত অনেক চলচ্চিত্রের মধ্যে ওয়ার্নিং সেরা একটি চলচ্চিত্র নানান কারণে। এর গল্প, সংলাপ, গান, লোকেশন, নির্মাণশৈলী সব মিলিয়ে চমৎকার একটি চলচ্চিত্র। পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করার মতো একটি চলচ্চিত্র। দর্শকের কাছে বিশেষ অনুরোধ থাকবে, প্লিজ আপনারা হলে গিয়ে সিনেমাটি উপভোগ করুন। আশা করি আপনাদের খুব ভাল লাগবে।’ নিজের অভিনীত ‘ওয়ার্নিং’ চলচ্চিত্র প্রসঙ্গে এমনই বলছিলেন এই সময়ের সেরা নায়িকা মাহিয়া মাহি। ‘ম্যাপল ফিল্মস’র ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছেন নবাগত প্রযোজক টপি খান। কাল সারাদেশের ৮৩টি সিনেমা হলে মুক্তি পাচ্ছে। সিনেমাটি মুক্তি পাওয়া উপলক্ষে গত সোমবার সকালে ব্যাঙ্কক থেকে ঢাকায় ফিরেছেন। ফিরেই তিনি জনকণ্ঠকে আলাদাভাবে সময় দিয়েছেন ছবি তোলার জন্য। গত ২৮ এপ্রিল নির্বাচনের দিন ঢাকা শহরে কোন যানবাহন না চলায় চলতে ফিরতে বাধাকে উপেক্ষা করেই উত্তরার একটি লোকেশনে মাহিয়া মাহি ছবি তুলতে আসেন। মাহি বলেন, ‘ওয়ার্নিং চলচ্চিত্রটি অনেক ভালো চলচ্চিত্র বলেই এর প্রমোশনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছি সব ধরনের মিডিয়াকে। আমার বিশ্বাস মিডিয়া আমার পাশে থেকে চলচ্চিত্রটির প্রমোশনে এগিয়ে যাবেন।’ ‘ওয়ার্নিং’ চলচ্চিত্রে দ্বিতীয়বারের মতো জুটিবদ্ধ হয়ে অভিনয় করেছেন মাহি ও আরিফিন শুভ। এর আগে তারা দু’জন ইফতেখার চৌধুরীর নির্দেশনায় ‘অগ্নি’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন গত বছর। তবে ধারণা করা হচ্ছে চলতি বছরের ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র হিসেবে স্থান করে নিবে মাহি ও শুভ জুটির দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ‘ওয়ার্নিং’। মাহি অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র দুটি হচ্ছে ‘রোমিও বনাম জুলিয়েট’ ও ‘বিগব্রাদার’। দুটি চলচ্চিত্রও ভাল ব্যবসা করেছে। তবে ‘ওয়ার্নিং’ সেই সফলতাকে ছাড়িয়ে যাবে এমনটাই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। কেমন ছিল সাংবাদিক চরিত্রে কাজ করার অভিজ্ঞতা? গল্পের ফাঁকে গরম কফিতে এক চুমুক দিয়ে মাহি বলেন, ‘এই চলচ্চিত্রে সাংবাদিক চরিত্রটি অনেক চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্র। এতে কাজ করার সময় পরিচালক, শুভসহ পুরো ইউনিট আমাকে চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে খুব সহযোগিতা করেছেন। আমার বিশ্বাস আমার চরিত্রটি সবার ভাল লাগবে।’ এদিকে পুরো একমাস দেশের বাইরে থেকে মাহি ‘অগ্নি-টু’ চলচ্চিত্রের কাজ শেষ করে এসেছেন। শুক্রবার হলে হলে দর্শকের সঙ্গে বসে নিজের অভিনীত সিনেমাটি উপভোগ করবেন বলে জানান তিনি। মাহিয়া মাহি অভিনীত যে চলচ্চিত্রগুলো গত বছর ব্যবসা সফল ছিল সেগুলো হচ্ছে ইফতেখার চৌধুরী পরিচালিত ‘অগ্নি’, সাফি উদ্দিন সাফি পরিচালিত ‘হানিমুন’, জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক সাধের ময়না’ ও সৈকত নাসির পরিচালিত ‘দেশা দ্যা লিডার’। এই চারটি চলচ্চিত্রই নির্মিত হয়েছে ‘জাজ মাল্টিমিডিয়া’র ব্যানারে। কারণে অকারণে একবাক্যে এই সময়ের চলচ্চিত্রাঙ্গনের সবাই স্বীকার করছেন কিংবা মেনে নিচ্ছেন সময়ের সেরা নায়িকা মাহিয়া মাহি। একজন তন্বী তরুনী নায়িকার মধ্যে যা যা থাকা অত্যাবশ্যকীয় তার সবই আছে। অভিনয়ে সিদ্ধহস্ত মাহী শুধু অভিনয়েই নিজেকে দক্ষ করে তুলেননি পাশাপাশি নিজেকে খুব অল্প সময়ে পর্দায় দর্শকের স্বপ্নের নায়িকায় পরিণত করেছেন। যে কারণে দর্শকের কাছেও মাহিয়া মাহি এখন নাম্বার ওয়ান নায়িকা হিসেবেই বিবেচিত হচ্ছেন। মাহির ডায়লগ থ্রোয়িং, বাচনভঙ্গি, স্মার্টনেস সর্বোপরি অভিনয় দক্ষতা সবই যেন মুগ্ধ হওয়ার মতো। তাই মাহী তাঁর ভক্ত দর্শককে একের পর এক ভাল ভাল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে মুগ্ধই করে চলেছেন। ২০১৩ সালের ৫ অক্টোবর শাহীন সুমন পরিচালিত ‘ভালোবাসার রং’ ছবি দিয়ে ঢালিউডে চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির অভিষেক ঘটে। অনেকেই তাকে বলেন ডিজিটাল ছবির প্রথম নায়িকা। ছবিটিতে তার নায়ক ছিলেন বাপ্পী চৌধুরী। প্রথম ছবিতেই মাহি তাঁর গ্ল্যামারাস উপস্থিতি আর অভিনয় দিয়ে দর্শকের মন কেড়ে নেন। অন্যদিকে সিনেমার পর্দায় মাহির মিষ্টি হাসির মাঝে অনেকেই আমাদের চলচ্চিত্রের আরেক মিষ্টি হাসির নায়িকা কবরীর মিষ্টি হাসির সাদৃশ্য খুঁজে পান। সেই হাসির সূত্র ধরেই হয়ত জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক সাধের ময়না’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ছবিতে আবারো ‘ময়না’ চরিত্রে অভিনয় করে আলোচনায় আনে গত বছরের শেষপ্রান্তে। মাহি বলেন, ‘এটা সত্যিই আমার জন্য অনেক সৌভাগ্যের বিষয় ছিলো যে আমি কবরী ম্যাডামের চরিত্রে অভিনয় করেছি। এটা আমার জন্য অনেক চ্যালেঞ্জিং ছিলো। কারণ চরিত্রটি অনেক কঠিন ছিলো। কিন্তু ছবির পরিচালক আমাকে ভীষণ সহযোগিতা করেছিলেন। সেই সঙ্গে আমার সহশিল্পী আনিসুর রহমান মিলন ভাই এবং বাপ্পীও চরিত্রটি ফুটিয়ে তোলার ক্ষেত্রে ভীষণ সহযোগিতা করেছেন। শেষ পর্যন্ত ছবিটি দর্শক গ্রহণ করায় আমি খুশি হই। আমি এই ধরনের ঐতিহাসিক চলচ্চিত্রের রিমেক কাজে থাকতে চাই। তাতে অভিনয়ে নিজেকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো। ’ রাজশাহীর মেয়ে মাহি অভিনীত জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক দামে কেনা’ চলচ্চিত্রটিও এখন মুক্তির অপেক্ষায়। ‘অগ্নি-টু’র পুরো কাজ শেষ করেই তিনি নতুন চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করবেন। তবে সে ব্যাপারে এখনই কিছু বলছেন না মাহি। সেটা না হয় সিক্রেটই থাক।