২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়’ বিষয়ে শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে


নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ২৯ এপ্রিল ॥ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজশিক্ষকদের ৯০তম ব্যাচের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার গাজীপুরের বোর্ডবাজারে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সম্মেলনকক্ষে প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, স্বাধীনতার আকাক্সক্ষা, স্বপ্ন ও দীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের নিকট তুলে ধরার লক্ষ্যে ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস’ শিরোনামে ১শ’ নম্বরের একটি কোর্স স্নাতক ও স্নাতক (সম্মান) শিক্ষা কার্যক্রমের সকল শাখায় শিক্ষার্থীদের জন্য অবশ্য পাঠ্য করা হয়েছে। বিষয়ের গুরুত্ব বিবেচনায় রেখে অবিলম্বে ‘স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়’ বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কলেজশিক্ষকদের একটি বিশেষ প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের আয়োজন করা হবে।

কক্সবাজার উপকূলে স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণ দাবি

ঘূর্ণিঝড়ে নিহতদের স্মরণ

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ ভয়াল ২৯ এপ্রিল উপলক্ষে কক্সবাজারের স্বজনহারা মানুষরা ১৯৯১-এর জলোচ্ছ্বাসে নিহতদের স্মরণে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে। মহাপ্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে নিহতদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ছিল জেলার কুতুবদিয়ায়। কক্সবাজার শহরে নিহতদের স্মরণে একটি শোক র‌্যালি বের হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। র‌্যালি শেষে সংক্ষিপ্ত পথসভায় কুতুবদিয়া সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন, দুই যুগ পার হলেও ক্ষতিগ্রস্তরা এখনও তাদের মাথা গোঁজার ঠাঁই যেমন খুঁজে পায়নি, একই ভাবে নির্মাণ করা হয়নি স্থায়ী বেড়িবাঁধও। যার কারণে প্রতিবছরই কক্সবাজার উপকূলের ১৫ লাখ মানুষ ফের ’৯১-এর মতো পরিস্থিতির আশঙ্কায় উৎকণ্ঠায় থাকে। উল্লেখ্য, ওই প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে কুতুবদিয়াসহ কক্সবাজার জেলায় লক্ষাধিক মানুষের প্রাণহানি ঘটেছিল।

কাপ্তাইয়ে পর্যটক ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার এক

নিজস্ব সংবাদদাতা, রাঙ্গামাটি, ২৯ এপিল ॥ জেলার কাপ্তাইয়ে ভ্রমণে এসে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে এক গৃহবধূ। চট্টগ্রাম শহরের সিএমপি কলোনির বাসিন্দা গার্মেটস দম্পতি সোমবার কাপ্তাইয়ে তাদের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে আসে। ওই দিন রাতে তারা কাপ্তাই ঝুম রেস্তোরাঁর পাশে একটি পাহাড়ে দৃশ্য দেখার জন্য ওঠে। সেখানে পাহাড়ের একটি পরিত্যক্ত ঘরে তারা প্রবেশ করলে দেখা যায় ওই স্থানে আগে থেকে ছয় যুবক মদ্যপ অবস্থায় বসে আছে। এরা এই দম্পতিকে পেয়ে স্বামীকে তাড়িয়ে দিয়ে স্ত্রীকে গণর্ধষণ করে। ঘটনাটি জানাজানি হলে মঙ্গলবার বিকেলে ধর্ষিতা বাদী হয়ে ছয়জনের বিরুদ্ধে কাপ্তাই থানায় মামলা করে।