২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ব্যাটিংয়েও ভাল করতে চান মঈন


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ মঈন আলি মাঠ ও মাঠের বাইরে ইংল্যান্ডের আলোচিত ক্রিকেটার। গত বছরের জুনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে লর্ডসে টেস্ট অভিষেক। জুলাইয়ে ভারতের বিপক্ষে বল হাতে জ্বলে ওঠেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত ইংলিশ প্রতিভা। ইনভেস্টেক সিরিজে তাঁর শিকার ছিল যথাক্রমে ৪, ৮, ৪ ও ১ উইকেট। যে ভারতীয়দের স্পিনের বিপক্ষে ভাল বলে ধারণা করা হয়, সেই তাদেরই ঘূর্ণিজাদুতে নাজেহাল করে ছাড়েন। ইনজুরি কাটিয়ে চলমান ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দ্বিতীয় টেস্টে ফিরেই ফের জ্বলে উঠেছেন। প্রথম ইনিংসে ১ ও দ্বিতীয় ইনিংসে ৩ উইকেট নিয়ে জয়ের পথে রাখেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান। এবার ব্যাট হাতেও ভাল করতে চান তরুণ অলরাউন্ডার। তৃতীয় ও শেষ টেস্ট শুরু ১ মে।

‘বল হাতে অবশ্যই ধারবাহিক হতে হবে, তবে ব্যাট হাতেও দলে আমার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। সুতরাং কার্যকর অলরাউন্ডার হিসেবে দুই ক্ষত্রেই সফল হতে চাই। ইনজুরি থেকে ফেরার পর শুরুতে, বিশেষ করে গ্রানাডা টেস্টের প্রথম ইনিংসে সমস্যা হচ্ছিল। কিন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে তা কেটে গেছে। আমার লক্ষ্য এখন সেরা ছন্দে ফেরা। বোলিং-ব্যাটিং, অলরাউন্ডার হিসেবে আরও কর্যকর হয়ে ওঠা। এজন্য প্রচুর পরিশ্রম করছি। আশা করছি, দলের হয়ে অবদান রাখতে পারব।’Ñ বলেন বার্মিহামে জন্ম নেয়া ২৭ বছর বয়সী অলরাউন্ডার।

ইংল্যান্ড ক্রিকেটে মঈনের আগমনটা আসলেই ধূমকেতুর মতো। গত এ্যাশেজে ভরাডুবি, প্রধান স্পিনার গ্রায়েম সোয়ানের নাটকীয় অবসর, মন্টি পানেসারের ব্যর্থতায় কপাল খুলে যায় প্রথম শ্রেণীর নিয়মিত পারফর্মারের। এ্যান্ডি ফ্লাওয়ারের চাকরি যাওয়ার পার দায়িত্ব নেয়া কোচ পিটার মুরসের এক্ষেত্রে ছিল বড় ভূমিকা। আগমনেই দুরন্ত নৈপুণ্যে সেই তিনিও সন্তুষ্ট। কোচ মুরস বলেন, ‘মঈন আগমনেই তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতের প্রমাণ দিয়েছে। শুরুতে অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন, কিন্তু আমরা ওর প্রতিভা সম্পর্কে অবগত ছিলাম। সে খুব দ্রুত উন্নতি করছে। আমার বিশ্বাস, ধারাবাহিক হয়ে সামনে এগিয়ে যাবে মঈন। ইনজুরির পর সহসা ছন্দ খুঁজে পাবে।’ এ্যাশেজে ভরাডুবির পর আচমকাই অবসর নেন প্রধান স্পিনার গ্রায়েম সোয়ান। মঈনকে ব্রেক দেয়া হয়। গত জুনে লর্ডসে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে টেস্ট অভিষেক। আন্তর্জাতিক অঙ্গনের বিশাল সমুদ্রে কিছুটা খেই হারিয়ে ফেলেন।