২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জমি নিয়ে প্রবাসী খুন


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে এক প্রবাসী খুন হয়েছে। এছাড়া রাঙ্গামাটিতে এক ভিক্ষু ও পাবনায় ছুরিকাঘাতে এক যুবক খুন হয়। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ॥ সরাইল উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে জাকির হোসেন নামের সদ্য সৌদি ফেরত এক ব্যক্তি খুন হয়েছে। আজ সোমবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটে। পরিবার সূত্র জানায়, হরিপুর গ্রামের হাজী আকবর আলীর ছেলে সদ্য সৌদি ফেরত জাকির হোসেন সোমবার সকালে নিজ ধানী জমিতে ধান কাটা দেখতে যায়। এ সময় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে পার্শ্ববর্তী সাতবাড়িয়া গ্রামের হীরণ মিয়া অর্ধশত লোকের একটি দলবল নিয়ে হামলা চালিয়ে জাকির হোসেনকে বল্লম দিয়ে আঘাত করে। এ সময় তার সঙ্গে থাকা আরও কয়েক জন আহত হয়। জাকির হোসেন বল্লমের আঘাতে গুরুতর আহত হলে স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে আনার পথে সড়কেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

রাঙ্গামাটি ॥ জেলার দুর্গম বাঘাইছড়ি উপজেলার করেংগাতলী বৌদ্ধ বিহারের প্রবীণ ভিক্ষু জ্ঞান জ্যোতি মাহাথেরো (৬০ ) রাজিব চাকমা নামে তারই এক নবীন শীর্ষের হাতে খুন হয়েছে। রাতের আঁধারে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে গলাকেটে হত্যা করে । রোববার রাত ১২টার সময় বিহারে ভেতরে তাকে হত্যা করে ঘাতক পালিয়ে যায়। সোমবার ভোরে লোকজান উপসানার জন্য বিহারে প্রবেশ করে তাদের ভিক্ষুকের লাশ দেখে বাগাইছড়ি থানায় খবর দেয়।

পাবনা ॥ শহরের সাকান মার্কেট এলাকায় পূর্ববিরোধের জের ধরে ছুরিকাঘাতে যুবক ফরিদের মৃত্য হয়েছে। রবিবার রাতে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে বনপাড়ায় তার মৃত্যু ঘটে। নিহত ফরিদ হোসেন মণ্ডল (২৬) শহরের চরঘোষপুর দোরাপাড়া মহল্লার আকুব্বর আলী ম-লের ছেলে। রবিবার বিকেলে সাকান মার্কেটের একটি সেলুনে ফরিদ হোসেনকে কতিপয় যুবক ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

ভৈরবে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ, নিহত এক

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভৈরব, ২৭ এপ্রিল ॥ রবিবার রাতে ভৈরবের চানপুর ও রাজাকাটা গ্রামের মধ্যে সবজি ক্ষেত নষ্ট করার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে ফারুক মিয়া (৩৮) নামে চানপুরের এক কৃষক মারা যায়। আহত হয় কমপক্ষে অর্ধশত। ফারুক মিয়া মারা যাবার খবর এলাকায় পৌঁছলে তার অনুসারী চানপুর গ্রামবাসী রাজাকাটা গ্রামে হামলা চালিয়ে প্রায় ৩০-৩৫টি বাড়িঘর ভাংচুরসহ ২৫টি বাড়িতে আগুন দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। নিহত ফারুকের মৃতদেহ বাজিতপুর থেকে এলাকায় আনা হলে আবারও হামলা হতে পারে এ আশঙ্কায় রাজাকাটা গ্রামের লোকজন বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছে।