২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আম নিয়ে এবার আতঙ্কে বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীরা


স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর কেমিক্যাল ফরমালিন, কার্বাইড ইত্যাদি আগাম মজুদের পাঁয়তারা শুরু হয়েছে। আম মৌসুমকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বড় বড় শহরের ব্যবসায়ীদের চাঁপাইনবাবগঞ্জে আনা হয়েছিল। তারা যেন এবার এসব কেমিক্যাল আগাম সুবিধা দরে কিনে মজুদ করে আমে ব্যবহার করতে পারে সে লক্ষ্যেই এই আগাম মজুদের আহ্বান। চোরাকারবারিদের মাধ্যমে নানা ধরনের লোভনীয় প্যাকেজ ঘোষণার মাধ্যমে কার্বাইড, ফরমালিনসহ বিভিন্ন মানের কেমিক্যাল বাজারজাত করার ম্যাসেজ আসে। সে অনুযায়ী বাংলাদেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা কেমিক্যাল কেনার অর্ডার দেয়া শেষ করেছে। মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে বাজারে আম আসার আগেই ক্ষতিকর কেমিক্যাল দেশে পৌঁছবে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিত করেছে। তবে বহু পরীক্ষা নিরীক্ষা চালিয়ে পড়শী দেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা আমে মেশানোর জন্য যে কেমিক্যাল এবার বাংলাদেশে ঠেলে দেবে, তা এ দেশের কোন ল্যাবরেটরি পরীক্ষায় ধরা পড়বে না। এমনকি এ দেশের কোন ফরমালিন শনাক্তকরণ মেশিনেও কোন আলামত বা ফরমালিনের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যাবে না। একমাত্র আম আমদানিকারক দেশ মালয়েশিয়া, জাপান, সিঙ্গাপুর, হংকং, নেদারল্যান্ডস, উত্তর আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, জার্মান, ফ্রান্স যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশের বিমানবন্দরসমূহে যে উন্নত মানসম্পন্ন মেশিন রয়েছে তাতেই শুধুমাত্র এই নতুন প্রযুক্তির তৈরি রাসায়নিক মেশানো আম শনাক্ত করতে পারবে। বর্তমানে এখানকার আম মৌসুম শুরু হবার আগেই চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা এবং দেশের বড় বড় বাজারে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহৃত রাসায়নিক সামগ্রী মিশ্রিত ভারতীয় আম পাওয়া যাচ্ছে। যা এখানকার কোন ল্যাবরেটরি পরীক্ষায় ধরা পড়বে না। এ মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে পড়শী দেশের তৈরি এসব বিষাক্ত রাসায়নিক মজুদ শুরু হবে। গত বছর ফরমালিনের নামে আতঙ্ক সৃষ্টি করায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুরো মৌসুমের আম ব্যবসা ল-ভ- হয়ে যায়। বহু আম ব্যবসায়ী তাদের পুঁজি হারায়। সেই বাজার দখলে নিয়েছিল এক শ্রেণীর আমদানিকারক। এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাগানে বাগানে আমের সমারোহ। আম ব্যবসায়ী ও বাগান মালিকরা আশায় বুক বেঁধেছে। এবার আমের অন ইয়ার, এ কারণে এবার চার হাজার কোটি টাকার আম ব্যবসা হওয়ার কথা। এই বিপুল পরিমাণ আমের উৎপাদনকে ঘিরে এবারও অসাধু ব্যবসায়ীরা কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে। এ জন্য এবারও আম ব্যবসা তছনছ হওয়ার আশঙ্কায় বাগান মালিক ও ব্যবসায়ীরা সন্ত্রস্ত রয়েছে।