২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

পাকিস্তানকে বাংলাওয়াশ


বাংলার দুর্জয় টাইগারদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের পরাশক্তি পাকিস্তান। বুধবার ঢাকার শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে পাকিস্তানকে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ৮ উইকেটে হারিয়ে দশমবারের মতো কোন দলকে হোয়াইটওয়াশ করল বাংলাদেশ। তবে পাকিস্তানের বিপক্ষে এটাই টাইগারদের প্রথম হোয়াইটওয়াশ।

এক সময় অনেকেই মনে করতো যে, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচ মানেই অবধারিত বিজয়। বাংলাদেশের টাইগাররা মেধা, দক্ষতা, নৈপুণ্য দিয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে। বিশেষ করে এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ প্রমাণ করেছে ক্রিকেটে তাদের দুর্বল ভাবার দিন ফুরিয়ে গেছে। কী বোলিং, কী ব্যাটিং, কী ফিল্ডিংÑ সবদিক দিয়ে বাংলাদেশ এগিয়েছে যোজন যোজন দূর। উদীয়মান ব্যাঘ্র এখন নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব দেখিয়ে দিয়েছে বিশ্বকে। সামনের দিনে এই শ্রেষ্ঠত্ব বাড়বে বৈ কমবে না বলে মনে করছেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরা।

বুধবার ২৫১ রানের টার্গেটকে সামনে রেখে মাঠে নামে টাইগাররা। ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার ব্যাটিং করতে নেমে আশার ঝলক তুলে ধরেন। টাইগারদের উড়ন্ত সূচনায় তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকার ১৪৫ রানের জুটি গড়ে তোলেন। আগের দু’ম্যাচে টানা সেঞ্চুরি করা তামিম ব্যক্তিগত ৬৪ রানের মাথায় আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে গেলেও ৩ ম্যাচের সিরিজে বিশ্বের তৃতীয় সেরা রান সংগ্রাহকের খাতায় নিজের নাম লিপিবদ্ধ করে গেলেন। তবে এদিন সৌম্য সরকার নিজের শ্রেষ্ঠত্বের ষোলোআনা প্রমাণ করে বুঝিয়ে দিয়েছেন বাংলার টাইগাররা দলের প্রয়োজনে সঠিক সময়ে সঠিক কাজটি করতে পারেন। ৯৪ বলে সেঞ্চুরি করে সৌম্য এক দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং নৈপুণ্য দেখিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে তাঁর পদধ্বনির জানান দিয়েছেন।

টাইগারদের সাফল্যে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পীকার, বিরোধীদলীয় নেত্রী, বিএনপি চেয়ারপার্সন অভিনন্দন জানিয়েছেন। বাংলার দামাল ছেলেদের সিরিজ জয় ও বাংলাওয়াশে দেশের মানুষ আনন্দে উদ্বেলিতÑ গোটা দেশ ভেসেছে আনন্দে। টাইগাররা এখন যোগ্যতার দিক দিয়ে তুঙ্গে অবস্থান করছেন। এই যোগ্যতা সামনের দিনেও বিশ্বের অন্যান্য শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠবে সেই প্রত্যাশা সবার।