২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

১৭ মাসের সর্বনিম্ন সূচক


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেও বড় ধরনের দরপতনের মধ্যদিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। দিনটিতে বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমার কারণে প্রধান বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স কমেছে ৬০ পয়েন্ট। ফলে সার্বিক সূচকটি কমতে কমতে অবস্থান করছে ৪ হাজার ১৯২ পয়েন্টে, যা গত ১৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর আগে ২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর এই সূচকের অবস্থান ছিল ৪ হাজার ১৯৭ পয়েন্ট। এই হিসাবে ডিএসইএক্স সূচক গত ১৭ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থানে নেমে গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে বেশিরভাগ কোম্পানির দরবৃদ্ধির কারণে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। কিন্তু বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শেয়ার বিক্রির চাপ বাড়তে থাকায় সূচকের তীর নীচের দিকে নামতে থাকে। শেষ বিকেলে শেয়ারের ক্রেতাও কমে যায়। তবে সূচকের পতন আর থামেনি। একই সঙ্গে কমেছে লেনদেনও। বৃহস্পতিবার ডিএসইতে ৩৭৭ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় ১৪৭ কোটি টাকা বা ২৮ শতাংশ কম। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৫২৫ কোটি ৫৮ লাখ টাকার শেয়ার।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩০৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এরমধ্যে দর বেড়েছে ৬২টির, কমেছে ২২১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির শেয়ার দর। এদিন ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ২৪ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৫৯২ পয়েন্টে। ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলোÑ ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলস, এসিআই লিমিটেড, সামিট এ্যালায়েন্স পোর্ট, ইফাদ অটোস, স্কয়ার ফার্মা এবং সাইফ পাওয়ারটেক।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ জেমিনি সী ফুড, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স লিমিটেড, রেকিট বেনকিজার, সিটি ব্যাংক, ইস্টার্ন লুব্রিক্যান্টস, ইউনিয়ন ক্যাপিটাল, মালেক স্পিনিং, দেশ গার্মেন্টস ও মোজাফফর হোসেন স্পিনিং।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ নর্দান ইন্স্যুরেন্স, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, সোনারগাঁও টেক্সটাইল, মার্কেন্টাইল ইন্স্যুরেন্স, পিপলস ইন্স্যুরেন্স, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, ন্যাশনাল হাউজিং এ্যান্ড ফাইন্যান্স লিমিটেড, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ, কেএ্যান্ডকিউ ও সামিট পোর্ট এ্যালায়েন্স।

এদিকে, ঢাকার মতো অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও সব ধরনের সূচক কমেছে। সারাদিন সেখানে মোট ৪১ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ২২৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৮৬১ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ১৭৭টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এরমধ্যে দর বেড়েছে ৩২টির, কমেছে ১৭৭টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৩টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলোÑ ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবল কোম্পানি লিমিটেড, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড, বেক্সিমকো, মবিল যমুনা বিডি, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং, গ্রামীণফোন ও লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট।