২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মুরসির বিরুদ্ধে হত্যা মামলার রায় কাল


বিক্ষোভকারীদের হত্যার অভিযোগে গণতান্ত্রিকাভাবে নির্বাচিত মিসরের প্রথম প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির বিরুদ্ধে করা মামলার রায় ঘোষণা করা হবে মঙ্গলবার। রায়ে মুরসির মৃত্যুদ- না হয় যাবজ্জীবন কারাদ- হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার দুই বছর পর এই রায় দেয়া হচ্ছে। খবর এএফপির।

এ মামলায় মোহাম্মদ মুরসির সঙ্গে আরও ১৪ জনকে আসামি করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে ২০১২ সালের ৫ ডিসেম্বর প্রেসিডেন্ট ভবনের সামনে বিক্ষোভ চলাকালে তিন বিক্ষোভকারীকে হত্যা ও অনেককে নির্যাতনের অভিযোগ আনা হয়। সাবেক প্রেসিডেন্ট মুরসি ওই সময় নিজের হাতে ব্যাপক ক্ষমতা রেখে ডিক্রি জারি করেছিলেন। সেখানে বলা হয়েছিল, তাঁর ডিক্রি বা জারি করা আইনের বিরুদ্ধে কেউ চ্যালেঞ্জ করতে পারবে না। ডিক্রির আওতায় তাঁর সিদ্ধান্ত কোন কর্তৃপক্ষ, এমনকি বিচার বিভাগও বাতিল করতে পারবেন না। মুরসির এমন ঘোষণার পরই সারাদেশে বিক্ষোভ দেখা দিয়েছিল।

সাবেক প্রেসিডেন্ট মুরসি এ মামলা ছাড়া আরও দুটি মামলায় মৃত্যুদ- পেতে পারেন। মামলা দুটির একটির অভিযোগ হলো, বিদেশী শক্তির চর হিসেবে কাজ করা। অন্য অভিযোগ ২০১১ সালে দেশটির তৎকালীন প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারকবিরোধী আন্দোলনের সময় জেল থেকে পলায়ন। চলতি বছর ১৬ মে এ দুটি মামলার রায় দেয়ার কথা রয়েছে। আর আগে বিচারকরা মুসলিম ব্রাদারহুডের নেতাদের মৃত্যুদ-ের মতো কঠোর রায় দিয়েছিলেন। সে সময় মুরসির শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়লে ২০১৩ সালের ৩ জুলাই দেশটির তৎকালীন সেনাপ্রধান ও বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল সিসি তাঁকে ক্ষমতাচ্যুত করেন। এরপর ক্ষমতাসীন সরকার ব্রাদারহুডের সমর্থকদের ওপর ব্যাপক নির্যাতন-নিপীড়ন চালায়। এতে মুরসির অন্তত এক হাজার চারশ’ সমর্থক নিহত হন। এছাড়া তার হাজার হাজার সমর্থককে কারাদ- দেয়া হয়।