১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাড়তে পারে স্বর্ণের দাম


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ গত কয়েক সপ্তাহ আন্তর্জাতিক মুদ্রাবাজারে মার্কিন ডলারের মান দুর্বল হয়ে পড়েছে। আগামী কয়েক দিনও এ অবস্থা চলতে পারে। আর এর প্রভাব পড়তে পারে স্বর্ণবাজারে, বাড়তে পারে দাম।

বিশ্বের ৩১টি বাজারে স্বর্ণ বিশেষজ্ঞের ওপর গবেষণা জরিপ চালিয়ে আগামী সপ্তাহের জন্য এমন পূর্বাভাস দিয়েছে জরিপ প্রতিষ্ঠান কিটকো নিউজ সার্ভে। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালিত জরিপে সাড়া দেন ২২ জন। এর মধ্যে ১৩ জন বিশেষজ্ঞ বলেছেন, স্বর্ণের দাম বাড়তে পারে; ৩ জন বলেছেন, মূল্য কমতে পারে। আর ৬ জন অপরিবর্তিত থাকতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছেন।

অন্যদিকে অনলাইনে পরিচালিত কিটকোর আরেক জরিপে দেখা গেছে, ৪২১ জনের মধ্যে ১৮৮ অর্থাৎ ৪৫ ভাগই বলেছে, আগামী সপ্তাহে স্বর্ণের দাম বাড়ছে। ১৪০ জন বলেছে, কমতে পারে। আর ৯৩ জন বলেছে, অপরিবর্তিত থাকবে।

গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের শ্রম অধিদফতর জানায়, মার্চে দেশটিতে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। এদিন বিশ্বের অধিকাংশ দেশের মুদ্রা মানের বিপরীতে ডলারের মূল্য ছিল কম। গত চার সপ্তাহের মধ্যে শুক্রবার শেষ হওয়া সপ্তাহ ছিল সবচেয়ে খারাপ। এর আগে ফেব্রুয়ারিতেও দেশটির মূল্যস্ফীতি সূচক বেড়ে যায়।

শেষ হওয়া সপ্তাহে আন্তর্জাতিক মুদ্রাবাজারে ইউরোর বিপরীতে ডলারের মান পড়ে যায় ২.১ শতাংশ। সিনিয়র বাজার বিশেষজ্ঞ টেডি সøপ কিটকোকে বলেন, মূলত মার্কিন ডলার শক্তিশালী হলে স্বর্ণের দাম কমে যায়। আর ডলারের মান কমে গেছে দাম বেড়ে যায়। তিনি আরও বলেন, ডলারের মান যেভাবে কমছে তা চলতে থাকলে আউন্সপ্রতি স্বর্ণের দাম ১ হাজার ২২১ এবং ১ হাজার ২২৫ ডলারের ঘেরো ভেঙ্গে যাবে (১ আউন্স=২.৪৩০৫ ভরি)।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে জুনে ডেলিভারি হওয়া স্বর্ণের দাম ধরা হয়েছে আউন্সপ্রতি ১ হাজার ২০৩.১০ মার্কিন ডলার; যা আগের দামের তুলনায় দশমিক ৩ শতাংশ কম।