১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ভেঙ্গে পড়েছে বঙ্কিমের স্মৃতিবিজড়িত বকুল গাছ


বিস্মৃতির অতলে হারিয়ে গেল সাহিত্য সম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের স্মৃতি বিজড়িত বকুল গাছটি। প্রাচীন ঐতিহাসিক এ বকুল গাছটি এতদিন খুলনা জেলা প্রশাসকের বাসভবন এলাকায় মাথা উঁচু দাঁড়িয়ে ছিল। পৌনে দু’শ’ বছরের প্রাচীন এ গাছটি অতীতে বড় বড় ঝড় ঝাপটা সামলে ছিল। সম্প্রতি ঝড়ের আঘাত সামলাতে না পেরে গাছটি ভেঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। ব্রিটিশ শাসনামলে খুলনার মহকুমা ম্যাজিস্ট্রেট থাকাকালে সাহিত্য সম্রাট বঙ্কিম চন্দ্র চট্টোপাধ্যায় বর্তমান জেলা প্রশাসকের বাসভবনে থাকতেন। জনশ্রুতি রয়েছে, সরকারী কাজ শেষে তিনি ওই বকুল গাছের নিচে বসে ভৈরব-রূপসার দৃশ্য অবলোকন করতেন, সাহিত্যচর্চা করতেন।

দিগন্ত বিস্তৃত সুন্দরবনের পটভূমিকায় এই উপন্যাস রচিত হয়।

১৮৮২ সালে খুলনা জেলা হিসেবে যাত্রা শুরু করে। জেলা প্রতিষ্ঠার পর ভৈরব-রূপসার তীরের ওই বাসভবনটি খুলনা জেলা প্রশাসকের বাংলোয় রূপান্তরিত করা হয়। সযতেœ লালন করা হয় সেখানে অবস্থিত বকুল গাছটি। বহু স্মৃতি ও ইতিহাসের সাক্ষী বকুল গাছটি গত ৫ এপ্রিল বিকেলে সামান্য ঝড়ে ভেঙ্গে যায়। এর আগে গত বছর ঝড়ে গাছটির বড় একটি অংশ ভেঙ্গে পড়ে। তারপর প্রশাসনের উদ্যোগে গাছটিকে রক্ষার জন্য বেঁধে রাখা হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত রক্ষা করা যায়নি। এই বকুল গাছের তলায় প্রতি বছর পয়লা বৈশাখ উদযাপনে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। গাছটি ভেঙ্গে যাওয়ায় এবার বৈশাখের আনন্দ অনেকটা ম্লান হয়ে যায়।

Ñঅমল সাহা, খুলনা থেকে