১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বৈশাখী সাজে রমণী


আফরোজা পারভীনের চোখে পহেলা বৈশাখ হচ্ছে একটি সর্বজনীন উৎসব। সর্বজনীন এই অর্থে, ঈদসহ অন্য বড় বড় উৎসব সাধারণত ধনী-গরিবের একটি তারতম্য দেখা যায়। বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলো এমন সব কাপড় তৈরি করে, যা মধ্যবিত্ত কিংবা নিম্ন মধ্যবিত্তদের নাগালের খুব বাইরে থাকে। কিন্তু পহেলা বৈশাখের বেলায় তা কিন্তু পুরোই ব্যতিক্রম। কারণ এ সময় ফ্যাশন হাউসগুলো সাধ্যের মধ্যে সকল আয়োজন করে থাকে। আনন্দে ভেদাভেদ থাকে না কোন নির্দিষ্ট শ্রেণীর। যার ফলে নববর্ষ হয় একটি আনন্দমুখর উপলক্ষ।

বৈশাখী সাজ : যে কোনো পালা-পার্বণে সাজগোজে ব্যাপারে একটু বেশি দুর্বল। আর সাজগোজের উপলক্ষটি যদি পহেলা বৈশাখের হয়, তাহলে তো কথাই নেই! নববর্ষের সাজ সম্পর্কে রূপবিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন বলেন, বৈশাখের সাজটি যেন অবশ্যই ফ্রেশ এবং লাইট হয়। বৈশাখ মাসে যেহেতু গরমের একটা ব্যাপার আছে, সেহেতু ভারি মেকাপ না নেয়াটাই উত্তম। শরীরের রঙের সঙ্গে মিল রেখে হালকা ব্লাশন করে নিলে ভাল হয়। সাজে যাতে অবশ্যই লাল-সাদার একটা মিল থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। সাজের মাধ্যমে যেন সম্পূর্ণভাবে বাঙালীয়ানার ছোঁয়া থাকে।

চোখ সাজাতে বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন রঙের কাজল পাওয়া যায়। পছন্দ অনুযায়ী তরুণীরা সাজিয়ে নিতে পারেন তাদের চোখ। এছাড়াও আই লাইনার, মাশকারা দিয়েও চোখ সাজানো যায়। তবে খেয়াল রাখতে হবে এগুলো যাতে ওয়াটার প্রুফ হয়। নতুবা গরমে মেকাপ নষ্ট হয়ে যাবার আশংকা থাকে।

বৈশাখের সাজে ঠোঁট রাঙাতে লাল লিপিস্টিক অথবা লাল ম্যাট তরুণীদের পছন্দের তালিকায় প্রথমে থাকে। এক্ষেত্রে তরুণীরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী ঠোঁট রাঙাতে পারে। শাড়ির সঙ্গে মিল রেখে দু’হাত ভরে পরা যেতে পারে চুড়ি। চুলের ক্ষেত্রেও আনা যেতে পারে কিছু বৈচিত্র্য। পোশাকের সঙ্গে মিল রেখে চুল খোলা অথবা পনিটেল বা বিভিন্ন ধরনের স্টাইলিশ বেণী করা যেতে পারে। যেহেতু গরম একটা কারণ সেক্ষেত্রে চুল বেঁধে রাখা বা খোঁপা করাটাই শ্রেয়। এর সঙ্গে কানের উপরি অংশে অথবা খোপায় যদি গোলাপ অথবা জারভেলা দেয়া যায়, তাহলে খুব একটা মন্দ হয় না।

তরুণীরা তাদের স্বাচ্ছন্দ্য অনুযায়ী শাড়ি, কুর্তি, ফতুয়া, ধূতি পায়জামা, টুপিস, থ্রিপিস প্রভৃতি পরতে পারেন।

‘সকল আয়োজনই ব্যর্থ হয়ে যাবে, যদি টিপ না থাকে নারীর কপালে’। একটি টিপ নারীর সৌন্দর্যকে কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিতে সক্ষম। তাই কপালে যদি একটি লাল টিপ থাকে, তাহলে তা খুব ভাল হয়।

‘রেড’-এ বৈশাখী অফার :

‘রেড বিউটি পার্লারে’ চলছে বৈশাখী অফার। অফার প্রসঙ্গে আফরোজা পারভীন বলেন, রেড বিউটি পার্লার থেকে যদি কেউ ৩৫০০ টাকার সার্ভিস নেন, তাহলে তিনি আই মেকআপ ফ্রি পাবেন। এই অফারটি গ্রাহকরা পহেলা বৈশাখ পর্যন্ত পাবেন। আর দ্বিতীয় অফারটি হচ্ছে যদি কেউ এখান থেকে ২০০০ টাকার সার্ভিস নেন তবে তিনি শাড়ি পড়ানো ফ্রি পাবেন।