২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হবিগঞ্জ কারাগারে হট্টগোল, তিন কারারক্ষী ক্লোজড


নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ, ১৩ এপ্রিল ॥ জামিনে মঞ্জুর এক ছাত্রদল নেতাকে দেখা ও বের করা নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি ও দায়িত্ব অবহেলার কারণে সোমবার বিকেলে হবিগঞ্জ জেলা কারাগারের প্রধানসহ ৫ কারারক্ষীকে ক্লোজড করা হয়েছে। এছাড়া এই তিনজনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্যও অনুরোধ জানানো হয়েছে। ক্লোজড ৫ জন হলেনÑ প্রধান কারারক্ষী বজানন্দ কৌরি, লিটন সরকার, কামাল হোসেন, জাকির হোসেন ও শাহনাজ মিয়া। এদিকে জেল সুপার নুরশেদ আহমেদ ভুঁইয়ার কঠোর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত এ পরিচ্ছন্ন ও পরিপাটি কারাগারে বিকেল ৫টার পর কোন রকম দর্শনার্থী প্রবেশ না করানোর নির্দেশনা থাকলেও সরকারী বিধি ভঙ্গ করে উক্ত দুই নেতাকে কারা ক্যাম্পাসে প্রবেশের সুযোগ করে দেয়ার অপরাধে সোমবার বিকেলে ওই ৫ জনকে ক্লোজড করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। তবে সদ্য যোগদানকৃত জেলার শামীম ইকবাল জনকণ্ঠের নিকট ৫ জনের পরবর্তিতে ৩ জনকে ক্লোজড করার কথা স্বীকার করলেও তার বিরুদ্ধে প্রধান কারারক্ষী বজানন্দ ও লিটনকে বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠার অভিযোগ করেছেন জেল সুপার নিজেই। অন্যদিকে জেল সুপার নুরশেদ ভুঁইয়া ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে প্রধান কারারক্ষীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্বাক্ষর করেন। তবে জেলার তা নিয়ে সময় ক্ষেপণ করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। এদিকে জেলা কারাগারে আটক অসংখ্য বিএনপি নেতাকর্মীর ইন্ধনে জেলার ইকবাল ক্লোজড কারারক্ষীদের উস্কিয়ে ওই রকম এমন ঘটনা পরিকল্পিতভাবে ঘটিয়ে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সরকারকে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলার এক হীন ষড়যন্ত্র করেছেন বলে জেল সুপার নুরশেদ জনকণ্ঠকে জানিয়েছেন।

পুলিশ ও কারা সূত্র জানায়, নাশকতা মামলায় সংশ্লিষ্ট কারাগারে আটক হবিগঞ্জ সরকারী বৃন্দাবন মহাবিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের জ্যেষ্ট যুগ্ম-আহ্বায়ক মহিবুর রহমান শাওন একটি মামলায় রবিবার আদালত থেকে জামিন লাভ করেন। ফলে তাকে দেখতে একই দিন বিকেল পৌনে ৬ টার দিকে ওই কারাগারে যান জেলা ছাত্রদল নেতা রাজু ও সদর উপজেলা ছাত্রদল নেতা শিপন। এ সময় শাওনকে দেখা নিয়ে কারারক্ষীদের সঙ্গে তাদের কথা কাটাকাটি হয়। এর জের ধরে হাতাহাতি, মারধোর ও অস্ত্র কেড়ে নেয়ার অভিযোগ ওঠে। এ খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রাজু ও শিপনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। বর্তমানে তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে পুলিশ প্রহরায়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: