১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শেষ মুহূর্তে বাজারে পর্যাপ্ত ইলিশ


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শেষ মুহূর্তে বাজারে ইলিশের সরবরাহ বেড়েছে। কমেছে দামও। এ কারণে নববর্ষের আগের দিন সোমবার ক্রেতাদের ইলিশ নিয়ে কাড়াকাড়ি করতে হয়নি। যদিও পহেলা বৈশাখ সামনে রেখে গত এক সপ্তাহ ধরে ইলিশ বাড়তি দামে বিক্রি হয়ে আসছিল। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মজুদকৃত মাছ বাজারে আসায় শেষ মুহূর্তে ইলিশের সঙ্কট কিছুটা দূর হয়েছে।

নববর্ষ সামনে রেখে রাজধানীর মাছের বাজারগুলোতে ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। সবাই ইলিশ কিনতে ছুটে এসেছেন বাজারে। বাজারের পাশাপাশি ভাসমান হকাররা পাড়া-মহল্লায় ইলিশ বিক্রি শুরু করেছে। এ ছাড়া অনেকে আবার বাসা-বাড়ির দরজায় ইলিশ নিয়ে হাজির। ফলে অনেক ক্রেতাকে কষ্ট করে আর বাজারে আসতে হয়নি। পছন্দমতো ইলিশ কিনতে পেরেছেন দরজা থেকেই।

স্বামীবাগের রুমানা পছন্দসই ইলিশ পেয়েছেন হকারের কাছেই। দেড় হাজার টাকা দিয়ে মাঝারি সাইজের একজোড়া কিনে নিলেন তিনি। জানতে চাইলে তিনি এ প্রসঙ্গে জনকণ্ঠকে বলেন, পহেলা বৈশাখ সামনে রেখে গত এক সপ্তাহ ইলিশের দাম ছিল নাগালের বাইরে। কিন্তু কাল (আজ) উৎসব তাই এখন আর মাছের অভাব নেই। এখন যেন তাড়াহুড়ো করে ইলিশ বিক্রি শুরু করেছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। কারণ আজকের (সোমবার) দিন গেলে কেউ আর ইলিশ নিয়ে বেশি আগ্রহ দেখাবে না। পান্তা-ইলিশের উৎসবের কারণে এখন ইলিশের চাহিদা বেড়েছে। তিনি বলেন, ইলিশ পাওয়া গেছে এটাই বড় কথা।

জানা গেছে, একদিন আগেও খুচরা বাজারে মাঝারিমানের হালিপ্রতি ইলিশের দাম হাঁকা হচ্ছে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা। এক কেজির বেশি হলেও দাম আরও বেশি। সে ক্ষেত্রে হালিপ্রতি ক্রেতাকে গুনতে হচ্ছে ১৬-২০ হাজার টাকা। ইলিশ মাছ বিক্রেতা স্বপন জনকণ্ঠকে বলেন, পহেলা বৈশাখ তাই দাম বেড়েছে। তবে এখন বাজারে মাছের সরবরাহ বেড়েছে। এ কারণে দামও কিছুটা কমের দিকে রয়েছে।