২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

‘বাংলাদেশের মাটিতে খেলা সহজ হবে না’


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর কয়েকদিন পরেই বাংলাদেশ সফরে আসবে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। পূর্ণাঙ্গ এ সিরিজে থাকবে ৩ ওয়ানডে, ১ টি২০ ও ২ টেস্ট। প্রায় সাড়ে তিন বছর পর আবার দ্বিপাক্ষিক কোন সিরিজ খেলতে আসছে পাকরা। ইতোমধ্যেই নিজেদের আরও শক্তিশালী হিসেবে উপস্থাপন করেছে বাংলাদেশ দল। বিশেষ করে ২০১২ এশিয়া কাপে রানার্সআপ হওয়া এবং এবার বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলে নিজেদের শক্তিমত্তা ও সামর্থ্যরে প্রমাণ দিয়েছে টাইগাররা। আর ঘরের মাঠে বিভিন্ন সময় প্রতিপক্ষদের নাজেহাল করার রেকর্ডও আছে। সেই কারণে বাংলাদেশের মাটিতে স্বাগতিক দলের বিরুদ্ধে খেলাটা একেবারেই সহজ হবে না বলে মনে করেন পাক ব্যাটসম্যান ফাওয়াদ আলম।

ওয়ানডে থেকে মিসবাহ-উল-হক ও অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদি অবসর নিয়েছেন। তাই ওয়ানডের নেতৃত্বে এসেছেন তরুণ ব্যাটসম্যান আজহার আলী। তবে তার নেতৃত্বে আসাটা ব্যাপকভাবে সমালোচিত হচ্ছে। বিশ্বকাপ স্কোয়াডেও ছিলেন না। টেস্ট স্পেশালিস্ট হিসেবে বিবেচিত হওয়া আজহার মাত্র ১৪ ওয়ানডে খেলেছেন। পাকিস্তানের হয়ে সর্বশেষ ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে একদিনের ম্যাচ খেলেছেন তিনি। দ্রুত ব্যাট চালাতেও তেমন পারঙ্গম নন আজহার। এরপরও তাকে অধিনায়ক করানোয় দলের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হতে পারে। কিন্তু ফাওয়াদ সে শঙ্কা উড়িয়ে দিলেন। তিনি দাবি করেছেন দলের প্রতিটি ক্রিকেটারের পরিপূর্ণ সমর্থন রয়েছে আজহারের প্রতি। এ বিষয়ে ফাওয়াদ বলেন, ‘প্রতিটি খেলোয়াড় দলের নতুন অধিনায়ককে সমর্থন করছেন। একজন অধিনায়ক দলের সব খেলোয়াড়ের পূর্ণ সহযোগিতা ছাড়া কিছু করতে পারেন না। আর আমরা এখানে সবাই তাকে পূর্ণ সমর্থন দিতে প্রস্তুত আছি।’

২৯ বছর বয়সী ফাওয়াদ নিজেও বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ছিলেন না। এবার বাংলাদেশ সফরে সুযোগ পেয়েছেন। ২০০৭ সালে অভিষেক হলেও গত ৮ বছরে মাত্র ৩৫ ওয়ানডে খেলার ভাগ্য হয়েছে তার। দলে নিয়মিত হওয়ার জন্য দারুণ এক সুযোগ মনে করছেন তিনি এবার বাংলাদেশ সফরকে। এ বিষয়ে ফাওয়াদ বলেন, ‘আমার মতো অনেক ক্রিকেটারই দলে ফিরে এসেছেন। আজহার ও সাঈদ আজমলও ফিরেছেন। সুতরাং এটা আমাদের জন্য ভাল সুযোগ নৈপুণ্য প্রদর্শন করা এবং ভাল করে জাতীয় দলে নিজেদের জায়গা পাকাপোক্ত করার।’ ২০১১ সালের ডিসেম্বরে সর্বশেষ বাংলাদেশ সফরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে সাফল্য নিয়েই ফিরেছিল পাকরা। এরপর ২০১২ এশিয়া কাপ, ২০১৪ এশিয়া কাপ ও টি২০ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মাটিতে খেলেছে তারা। এর মধ্যে অভূতপূর্ব উন্নতি হয়েছে বাংলাদেশ দলের। তাই আসন্ন সিরিজ নিয়ে ফাওয়াদ বলেন, ‘যদিও বলছি ভাল করতে চাই। কিন্তু বাংলাদেশের মাটিতে তাদের প্রতিপক্ষ হিসেবে খেলা সহজ নয়।’

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: