১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দক্ষিণ চট্টগ্রামের পৌনে এক লাখ ভোটারও এবার ফ্যাক্টর


বিকাশ চৌধুরী, পটিয়া থেকে ॥ ঘনিয়ে এসেছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন। এই নির্বাচনে মোট ভোটার সোয়া ১৮ লাখ। তন্মধ্যে কর্ণফুলীর ওপাড়ের অর্থাৎ দক্ষিণ চট্টগ্রামের ভাসমান ভোটার রয়েছেন পৌনে এক লাখ। ভাসমান এসব ভোটাররা দীর্ঘদিন নগরীতে ব্যবসা-বাণিজ্য ছাড়াও নানা কারণে অনেকটাই স্থায়ী বাসিন্দা। তাদের পৈত্রিক বাড়ি দক্ষিণ চট্টগ্রামের পটিয়া, বোয়ালখালী, চন্দনাইশ, সাতকানিয়া, লোহাগাড়া, বাঁশখালী, আনোয়ারা ও কর্ণফুলী থানা এলাকায়। এই ভোটগুলোও প্রার্থীর জয়-পরাজয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নাগরিক কমিটির মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন ও বিএনপি সমর্থিত চট্টগ্রাম উন্নয়ন আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমের মধ্যে মূলত লড়াই হবে। প্রার্থী বিজয়ের ক্ষেত্রে ভাসমান ভোটাররা বড় ফ্যাক্টর হতে পারে। বুধবার রাতে আওয়ামী লীগ সমর্থিত নাগরিক কমিটির মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন নগরীর প্যারাগন সিটি কমিউনিটি সেন্টারে দক্ষিণ চট্টগ্রামের ভাসমান ভোটারদের (ব্যবসায়ী) সঙ্গে মতবিনিময় সভাও করেছেন। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী বিজয়ের ক্ষেত্রে ভাসমান ভোটাররা ফ্যাক্টর হতে পারে। চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ, রেয়াজুদ্দিন বাজার, টেরিবাজার ও আন্দরকিল্লা এলাকার শতকরা ৭০ ভাগ ব্যবসায়ী দক্ষিণ চট্টগ্রামের। নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে দক্ষিণ চট্টগ্রামের পৌনে এক লাখ নারী ও পুরুষ ভোটার। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এবার সর্বমোট ভোটার ১৮ লাখ ১৩ হাজার ৯৬৭। কেন্দ্র ৭১৯টি। তার মধ্যে বুথ ৪ হাজার ৮৯৮টি। এদিকে, মাঈনুদ্দিন খান বাদল এমপির আসনটি নগরীর একটি অংশে হলেও তার মধ্যে মোহরা, চান্দগাঁও, পাঁচলাইশ, পূর্ব ষোলশহর ও পশ্চিম ষোলশহর এলাকায় ১১৫টি কেন্দ্রে ২ লাখ ৯৬ হাজার ৬৪৫ ভোটার রয়েছে। ফলে জাসদ নেতা সাংসদ মাঈনুদ্দিন খান বাদলের ভূমিকার উপর নির্ভর করছে এসব ভোট কেন্দ্রগুলো।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ও মেয়র প্রার্থী নাছিরের ঘনিষ্ঠজন ডা. তিমির বরণ চৌধুরী বলেন, নগরীতে দক্ষিণ চট্টগ্রামের যেসব ভাসমান ভোটার রয়েছে তাদের সঙ্গে মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিনের মতবিনিময় হয়েছে।