১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কলাপাড়ায় পরিত্যক্ত ভবনে পাঠদান


নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ৯ এপ্রিল ॥ পরিত্যক্ত ঘোষণার চার বছর পরও সাইক্লোন শেল্টার কাম বিদ্যালয় ভবনটি ভেঙ্গে অপসারণ না করায় ১৮৫ শিশু শিক্ষার্থী নিয়ে অভিভাবক ও শিক্ষকরা চরম বিপাকে পড়েছেন। প্রতিনিয়ত পলেস্তরাসহ ভবনের কোন কিছু ধসে পড়ছে। আহত হচ্ছে ক্ষুদে শিক্ষার্থী। ধুলাসার ইউনিয়নের নতুনপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরনো বহুতল এ ভবনটি এখন সেখানকার শিক্ষার্থীদের দুর্ঘটনার শঙ্কায় তাড়া করছে। ২০১০ সালে বহুতল ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। কিন্তু আজ অবধি এটি ভেঙ্গে অপসারণ করা হয়নি। জীর্ণ, ভগ্নদশার ভবনটি ঘেষে নতুন একটি ভবনে এখন চলছে শিশুদের লেখপড়া। নতুন ভবনটিতে মাত্র দুটি কক্ষে ক্লাস করতে পারছে শিশুরা। স্থান সমস্যার অন্ত নেই। শিশু শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা ফ্লোরে মাদুর বিছিয়ে লেখাপড়া করতে বাধ্য হচ্ছে। এ ভবনটির সামনে দিয়ে হাঁটা-চলার সময়ও সংলগ্ন পুরনো ভবনের ইট-খোয়া কিংবা পলেস্তরা খসে পড়ছে।

স্কুলছাত্র লিমন, আল ইমরান, নাঈম, সোহেল জানায়, তারা এই বিল্ডিংয়ের ছাদে উঠে খেলাধুলা করে। বৃষ্টি হলে রুমের মধ্যে খেলাধুলা করে। স্থানীয়রা জানান, গত দুই বছরে অন্তত ২০/২৫ শিশু পলেস্তরা খসে আহত হয়েছে। তাদের দাবি, ভবনটি ভেঙ্গে নতুন ভবন করা হোক।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ আলতাফ হোসেন জানান, বর্তমানে ওই বিল্ডিংটি খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমিন জানান, তাঁরা প্রায় চার বছর আগে ওই বিদ্যালয় কাম সাইক্লোন শেল্টারটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছেন। ভেঙ্গে ফেলার অনুমতি চেয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি পাঠানো হয়েছে। সরকারী অনুমোদন হলেই তারা পরিত্যক্ত ভবনগুলো ভেঙ্গে ফেলবেন।