১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

যুদ্ধে শ্রেষ্ঠত্ব হারাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র


‘যথার্থ ও অভ্রান্ত অস্ত্রের বিস্তার’ এবং ইউক্রেনে রাশিয়ার প্রদর্শন করা যুদ্ধরীতির প্রসার ‘মার্কিন যুদ্ধ পদ্ধতির সমাপ্তির ঝুঁকি নিয়ে এসেছে, গত তিন দশক ধরে আমরা যে পদ্ধতিতে অভ্যস্ত হয়ে গেছি।’ মার্কিন উপপ্রতিরক্ষামন্ত্রী রবার্ট ওয়ার্ক বুধবার এ সতর্কবাণী উচ্চারণ করেছেন। রবার্ট ওয়ার্ক তার ভাষণে প্রতিরক্ষা মহলে যা উত্তপ্ত বিতর্কের সৃষ্টি করতে পারেÑ বিদ্রোহপরবর্তী যুগের জন্য স্থল যুদ্ধরীতির একটি কাল্পনিক রূপরেখা তুলে ধরেন। কথিত এই যুগে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিপক্ষরা ছলচাতুরির কৌশল ও উচ্চ প্রযুুক্তির ভারি কামান ঘুরেফিরে ব্যবহার করছে। ‘প্রায় অব্যর্থ এসব প্রচলিত অস্ত্রশস্ত্র’ তার সতর্কবাণী অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর শক্তি-সামর্র্থ্যকে ছাড়িয়ে যেতে পারে। খবর গার্ডিয়ানের।

ওয়ার্ক পেনসিলভানিয়ার কার্লাইলে আর্মি ওয়্যার কলেজে প্রদত্ত ভাষণে বলেন, আমি আপনাদের বলছি, আমাদের প্রযুক্তিগত শ্রেষ্ঠত্ব হ্রাস পাচ্ছে। প্রতিদিনই আমরা তা দেখছি।

স্থল যুদ্ধরীতি প্রশ্নে ওয়ার্কের ব্যাপক চিন্তাভাবনা বারাক ওবামার আমলের পেন্টাগনের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য ব্যতিক্রমÑ যে আমলে এখন পর্যন্ত ইরাক ও আফগানিস্তানপরবর্তী পর্যায়ে বৃহৎ আকারে কোন স্থল অভিযান দেখা যায়নি। কতিপয় সেনা কর্মকর্তা বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, এসব কঠিন যুদ্ধে তাদের পদকপ্রাপ্তি অবান্তর হয়ে গেল কিনা। ওয়ার্ক তার লিখিত মন্তব্যে বলেন, এটা নিশ্চিতভাবে সম্ভব যে ভবিষ্যতে আমাদের অনুরূপ অভিযান চালাতে হবে। ওবামা প্রশাসনের উর্ধতন পর্যায়ে এ ধরনের অভিমত খুব কমই ব্যক্ত করা হয়।

তবে, ইরাক অথবা আফগানিস্তানের মতো বিদ্রোহের বিরুদ্ধে লড়াই করার পরিবর্তে ওয়ার্ক আভাস দেন, ভবিষ্যতের মার্কিন স্থলযুদ্ধের প্রতিপক্ষরা অনেকটাই রুশ সমর্থিত ক্রিমিয়া ও পূর্ব ইউক্রেন দখলকারীদের মতো হবে। তিনি সতর্ক করে দেন, সেনাবাহিনীকে অবশ্যই ভবিষ্যতের এমন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে, যেসব যুদ্ধে বিদেশ সমর্থিত প্রতিপক্ষ অত্যন্ত নির্ভুল, লক্ষ্যভেদী ভারি কামান ব্যবহারের পাশাপাশি ছলচাতুরিভিত্তিক অভিযানও চালাবে। অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র, যা এক সময় শুধু আঞ্চলিক শক্তিগুলোর কাছেই লভ্য ছিলÑ তার মূল্য অভাবনীয়ভাবে হ্রাস পেয়েছে। সেই সঙ্গে ড্রোন প্রযুক্তির ও সর্বাধুনিক সাইবার প্রযুক্তির বিস্তার ঘটেছে। ইউক্রেনে রাশিয়ার যুদ্ধ ছিল প্রচলিত লড়াইয়ের কাছাকাছি, যার জন্য রুশ সেনাবাহিনীকে স্নায়ুযুদ্ধের সময় থেকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছিল আর ইরাক ও আফগানিস্তানে ব্যাপকভাবে ভিন্ন ধরনের যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র যে ধরনের প্রশিক্ষণের ওপর জোর দিয়েছিল তা ব্যাপক সমালোচনার শিকার হয়। ওয়ার্ক সতর্ক করে দেন যে, যুক্তরাষ্ট্রের স্থলবাহিনীর এমন এক শত্রুপক্ষ মোকাবেলায় কম প্রস্তুতি রয়েছে যাদের অনিয়মিত বাহিনীর আধাসামরিক দক্ষতা একটি প্রচলিত বাহিনীর উচ্চ প্রযুক্তির অস্ত্রসম্ভারের সমকক্ষ। রুশ পৃষ্ঠপোষকতাধীন ইউক্রেনীয় বিচ্ছিন্নতাবাদীরা এবং হিজবুল্লাহ চর, আধাসামরিক বাহিনীর প্রতারণা, অনুপ্রবেশের এবং অস্ত্র ব্যবহার করে প্রায়ই মিলিশিয়া ও সেনাবাহিনীর মধ্যে সব সীমারেখা মুছে ফেলে। ওয়ার্ক বলেন, এ ক্ষেত্রে আমরা বিশেষভাবে তৎপর নই, তবে এটা এমন এক ক্ষেত্র যেখানে আমাদের অবশ্যই আরও পারদর্শী হয়ে উঠতে হবে।

ওয়ার্কের ভাষণ সেনা কর্মকর্তাদের এ ব্যাপারে আশ্বস্ত করেছে যে, পেন্টাগনের চলতি পরিকল্পনায় স্থলযুদ্ধের একটি স্থান আছে। তবে উপপ্রতিরক্ষমন্ত্রী একটি প্ররোচনামূলক এমনকি এক নিষিদ্ধ বিষয়ের ওপর আলোচনার সূত্রপাত করেছেন: অবিরাম সংঘাতের এক যুগে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি অর্থ যোগানো সামরিক বাহিনীর সুস্পষ্ট জয়লাভের সম্ভাবনার অভাব।