২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কবরীর নির্বাচনী ব্যয় ৩০ লাখ টাকা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ চলচ্চিত্রে মিষ্টি মেয়ে খ্যাত সারাহ বেগম কবরী ফের নির্বাচনী মাঠে। এবার ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী তিনি। নির্বাচনে তিনি ৩০ লাখ টাকা ব্যয় করতে চান। আয়ের উৎস হিসেবে চলচ্চিত্রে অভিনয় ও পরিচালনার কথা নির্বাচন কমিশনে দাখিল করা সম্ভাব্য অর্থপ্রাপ্তির উৎস ও ব্যয় বিবরণীতে উল্লেখ করেছেন। নির্বাচনের জন্য কারও কাছ থেকে আর্থিক কোন অনুদান বা ধার নিচ্ছেন না। নিজের আয়ের অর্থেই পুরো ব্যয় পরিচালনা করতে চান তিনি।

নির্বাচনী প্রচারে এক লাখ পোস্টার করবেন তিনি। ছাপাতে ব্যয় ধরা হয়েছে দুই লাখ টাকা। নির্বাচনী অফিস করবেন ২০টি। লিফলেট দুই লাখ। হ্যান্ডবিল দুই লাখ। ৩৬টি নির্বাচনী ব্যানার ও ৫০টি পথসভা করার কথা কমিশনের কাছে উল্লেখ করেছেন তিনি। আওয়ামী লীগের সাবেক সাংসদ ছিলেন কবরী। নারায়ণগঞ্জ থেকে নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছিলেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী। সর্বশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নেননি তিনি। এরপর থেকে রাজনীতিতে খুব একটা সরব দেখা যায়নি এই নায়িকাকে। সিটি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিল করে সংবাদমাধ্যমে ফের আলোচনায় আসলেন খ্যাতিমান এই চলচ্চিত্র পরিচালক। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে ব্যবসায়ী নেতা আনিসুল হককে সমর্থন দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে দলের শীর্ষ নেতাদের ডেকে সমর্থিত প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এই প্রেক্ষাপটে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয় নিশ্চিত করতে ঐক্যের পথে হাঁটতে শুরু করেছে ক্ষমতাসীন দল। কৌশল হিসেবে তারা বিদ্রোহী প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরিয়ে দলের সমর্থিত প্রার্থীকে সমর্থন দেয়ার চেষ্টা করছে।

মেজবানের আয়োজন করায় চট্টগ্রামে এক কাউন্সিলর প্রার্থীকে জরিমানা

চসিক নির্বাচন

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে মেজবানের আয়োজন করার ঘটনায় চসিকের ৩ নম্বর পাঁচলাইশ ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর শফিকুল ইসলামকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এদিকে, কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আবারও একই পদে প্রার্থী হয়েছেন। রবিবার রাতে তিনি স্থানীয় মহল্লা সর্দারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভার ব্যানারে ১ হাজার মানুষের জন্য মেজবানের আয়োজন করেন। খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুল হাসান তাৎক্ষণিক অভিযান পরিচালনা করেন। মেজবান আয়োজনের ঘটনাটি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনে পড়ায় তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং মেজবানের যাবতীয় সরঞ্জাম আটক করা হয়।