১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রুবেল-মাশরাফি ঝড়ে জয় দক্ষিণাঞ্চলের


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ রুবেল মাঠে নামলেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই খবর আসল অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপির করা শিশু ও নারী নির্যাতন মামলা থেকে অব্যাহতি পেতে যাচ্ছেন। তা যেন কানে পৌঁছতেই বাংলাদেশ পেসার রুবেল হোসেন আগ্রাসী হয়ে উঠলেন। এতটাই ত্রাস দেখালেন প্রাইম ব্যাংক দক্ষিণাঞ্চলের এ পেসার, ওয়ালটন মধ্যাঞ্চলের ইনিংস দুমড়ে মুছড়ে দিলেন। এমনই গতির ঝড় তুললেন, একাই ৫ উইকেট নিয়ে নিলেন। রুবেলের বোলিং ঝড়ের পর মাশরাফির (৩৩ বলে ৫০) ব্যাটিং ঝড়ে মধ্যাঞ্চলের বিপক্ষে ৩ উইকেটে জিতল দক্ষিণাঞ্চল।

ম্যাচটি হয় ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে। দুপুর দেড়টায় শুরু হয় ম্যাচ। মধ্যাঞ্চল ৪৫.৩ ওভারে ২১৩ রান করতেই অলআউট হয়ে যায়। ধীমান ঘোষ অপরাজিত ৬৪ রান করেন। রুবেল ৪২ রান দিয়ে নেন ৫ উইকেট। জবাবে ৪৮.২ ওভারে ২১৬ রান করে দক্ষিণাঞ্চল ম্যাচ জিতে যায়। মাশরাফির দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ম্যাচ জেতে।

অবশ্য রুবেল ঝড়ের পরও দক্ষিণাঞ্চল শুরু থেকেই হারের সম্ভাবনায় পড়ে গিয়েছিল। ১১১ রানে গিয়ে ৫ উইকেটের পতন ঘটতেই দক্ষিণাঞ্চলের বিপদ তৈরি হয়। ইলিয়াস সানি পরপর তিন উইকেট নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের বারোটা বাজিয়ে দেন। ১৩২ রানে জিয়াউরের (১১) উইকেটটি হারানোর পর ১৪৩ রানে গিয়ে মিঠুনের (৩৪) উইকেটটি মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ যেই শিকার করেন, সেখানেই যেন হারের সম্ভাবনাতেই পড়ে যায় দক্ষিণাঞ্চল। কিন্তু শেষ দিকে রাজ্জাককে (২৮*) সঙ্গে নিয়ে মাশরাফি এমন ঝড়ই তুলেন, ম্যাচই জিতিয়ে দেন। ম্যাচে টস জিতে মধ্যাঞ্চল। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু সিদ্ধান্তটি যে সঠিক নয়, তা বুঝিয়ে দেন পেসার রুবেল। ৫৭ রানে যে মধ্যাঞ্চল চার উইকেট হারায়। এর তিনটিই হজম করে নেন রুবেল। দ্রুত চার উইকেট হারিয়ে ছন্নছাড়া হয়ে পড়ে মধ্যাঞ্চলের ইনিংস। সেখান থেকে দলকে কিছুটা টেনে নিয়ে যান মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (৩১) ও নাদিফ চৌধুরী (২০)। পঞ্চম উইকেটে দুইজন মিলে ৩৩ রানের জুটি গড়েন। ৯০ রানে গিয়ে মধ্যাঞ্চলের অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ আউট হয়ে যান। এরপর আরেকটি জুটির দেখা মিলে। নাদিফ ও ধীমান ঘোষ মিলে ৩২ রানের জুটি গড়েন। ১২২ রানে গিয়ে যেই নাদিফ আউট হন, এরপর মুহূর্তেই দুটি উইকেটের পতন ঘটে যায়। মনে হচ্ছিল, ২০০ রানও করতে পারবে না মধ্যাঞ্চল। কিন্তু নবম উইকেটে গিয়ে ধীমান ও শরীফ মিলে দলকে এগিয়ে নিয়ে যান। ৫২ রানের জুটি গড়েন। ধীমান দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন। একদিকে উইকেট পড়তে থাকলেও ধীমান উইকেট আঁকড়ে থাকেন। ধীমান ৬১ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় অপরাজিত ৬৪ রান করেন।

স্কোর ॥ মধ্যাঞ্চল ইনিংস ২১৩/১০; ৪৫.৩ ওভার (ধীমান ৬৪*, মাহমুদুল্লাহ ৩১, শরীফ ২০; রুবেল ৫/৪২)।

দক্ষিণাঞ্চল ইনিংস ২১৬/৭; ৪৮.২ ওভার (সৈকত ৫০, মাশরাফি ৫০*, রাজ্জাক ২৮*, মিঠুন ৩৪)

ফল ॥ তিন উইকেটে জিতে দক্ষিণাঞ্চল।

ম্যাচসেরা ॥ মাশরাফি বিন মর্তুজা (দক্ষিণাঞ্চল)।

তরুণদের লড়াইয়ে দ. আফ্রিকাকে হারাল বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দক্ষিণ আফ্রিকা অনুর্ধ-১৯ দলকে ৫ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ অনুর্ধ-১৯ দলের ক্রিকেটাররা। সোমবার সাভারের বিকেএসপিতে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে পুরো ৫০ ওভার ব্যাট করে ৯ উইকেটে ১৭১ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা অনুর্ধ-১৯ দল। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন উইয়ান মুল্ডার। ১০ ওভার বল করে ১৭ রান দিয়ে ৬ উইকেট নেন লেগস্পিনার সালেহ আহমেদ। ছোট সংগ্রহ তাড়া করতে নেমে ১২ ওভার ও ৫ উইকেট হাতে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ। ৩৮ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান তোলে তারা। অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত দলীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান করে অবসর নেন।