২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আত্মসমর্পণ করে পার পাবেন না খালেদা জিয়া ॥ ড. হাছান মাহমুদ


স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও সাবেক পরিবেশমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া অফিসে বসে নির্দেশ দিয়ে ১৫০ জনকে হত্যার পর আদালতে আত্মসমর্পণ করে ঘরে ফিরেছেন। খালেদা জিয়া যে শুধু আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন তা নয়, তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছেও আত্মসমর্পণ করেছেন। পাশাপাশি খালেদা জিয়া দেশের জনগণের কাছেও আত্মসমর্পণ করেছেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়া আত্মসমর্পণ করে পার পাবেন না। তিন মাস ধরে অফিসে বসে ১৫০ মানুষ হত্যার দায়ে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি হতে হবে। রবিবার সন্ধায় চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লা জেএম সেন হলে চট্টগ্রামের সনাতনী নাগরিক সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ সব কথা বলেন। দেবাশিষ পালিতের সভাপতিত্বে আয়োজিত এই সভায় সাবেক পরিবেশ ও বনমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি ঢাকা ও চট্টগ্রামের মেয়র নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেন, বিএনপি এখন জঙ্গী দলে পরিণত হয়েছে। এই দলের নেতারা জঙ্গী কর্মকা- এবং পেট্রোলবোমা হামলাকারীদের অর্থায়ন করেছেন। চট্টগ্রামে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এম মনজুর আলম পেট্রোলবোমা হামলাকারীদের অর্থ যোগানদাতা। তাই ঢাকা ও চট্টগ্রামের মেয়র নির্বাচনে এদের প্রতিহত করতে হবে। ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, গত ৫ বছর বিএনপি সমর্থিত মনজুর আলম চট্টগ্রামের মেয়র থাকাকালীন চট্টগ্রাম মহানগরীকে তিনি জলাবদ্ধ নগরীতে পরিণত করেছেন। নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে চট্টগ্রাম বন্দরের মাধ্যমে মেয়র মঞ্জুর আলমকে ১১২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। সেই টাকা মনজুর আলম কি করেছেন তা চট্টগ্রাম নগরবাসী জানতে চায়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তবে চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, আমি যতদিন বেঁচে থাকব অসাম্প্রদায়িতক চেতনাকে ধারণ করে বেঁচে থাকব। ভবিষ্যতে সুযোগ আসলে সনাতনী সমাজের কল্যাণে কিছু করার চেষ্টা করব। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সনাতনী নাগরিক সমন্বয় কমিটির ট্রাস্টি জীতেন্দ্র প্রসাদ নাথ মন্টু, রাখাল দাশ গুপ্ত, ড. জিনবোধী ভিক্ষু, এ্যাডভোকেট তপন কান্তি দাশ, কাজল কান্তি দত্ত, অধ্যাপক রনজিত দে, এ্যাডভোকেট চন্দন বিশ্বাস, অধ্যক্ষ রনজিত ধর, ড. জ্যোতি প্রকাশ দত্ত, এ্যাডভোকেট সাধনময় ভট্টাচার্য্য, এ্যাডভোকেট সুভাষ লালা, রতœাঙ্কুর দাশ টুনু প্রমুখ।