২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

উল্টো বাড়ি


২০০৪ সালের ৪ সেপ্টেম্বর জার্মানির মেকলেনবুর্গ ফোয়রপমার্ন রাজ্যের ট্রাসেনহাইডে-তে নির্মাণ করা হয় অদ্ভুত এই বাড়ি। জার্মান ভাষায় বাড়িটির নাম, ‘ডি ভেল্ট শ্টেট কপ্ফ’, অর্থাৎ ‘পৃথিবীটা মাথার ওপরে দাঁড়িয়ে’। সত্যিই তাই। বাংলায় ‘হেঁট মুণ্ডু ঊর্ধ্ব পদ’ বলে একটা কথা আছে। ঠিক সেভাবে এ বাড়ির ছাদটা নিচে, আর নিচে থাকার জিনিসগুলো সব ওপরে। পর্যটকদের প্রধান আকর্ষণ হয়ে উঠেছে এই বাড়ি।

শত কোটি টাকার হাতঘড়ি

ব্রিটিশ অলঙ্কার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান গ্রাফ জুয়েলারি মহামূল্য সাদা হীরার অপরূপ কারুকাজ সংবলিত একটি হাতঘড়ি তৈরি করেছে। সন্দেহ নেই, পৃথিবীর ধনী নারীদের হাতে শোভা বৃদ্ধির জন্য এর চেয়ে উপযোগী কোন ঘড়ি হয় না। এতে ব্যবহৃত হয়েছে ১৫৩ ক্যারেট সাদা হীরার টুকরো; নাশপাতির আকারে আকৃতি দেয়া হয়েছে যাদের। দেখে স্বচ্ছ কারুকাজময় জলের ফোঁটাও মনে হতে পারে।

ঘড়িটির মূল্য ধরা হয়েছে ৪০ মিলিয়ন ডলার। গত ১৯ মার্চ সুইজারল্যান্ডের বাসেলে অনুষ্ঠিত এক ঘড়ি-প্রদর্শনীতে এটি উন্মুক্ত হয়েছে। এর দুর্লভ বৈশিষ্ট্যগুলোর একটি হলোÑ এতে ৩৮ ক্যারেটের একটি নাশপাতি আকৃতির হীরাকে আলাদা করে চাইলে ব্রেসলেট হিসেবে পরা যাবে।

নির্মাতাদের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, এটি বিশ্বের রূপান্তরযোগ্য ঘড়িগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দামী। মার্কিন অভিনেত্রী মেরিলিন মনরোর একটি কথা ছিল এমনÑমেয়েদের সেরা বন্ধু হীরে। এ বাক্যকে সামনে রেখে ধনী নারীরা তাদের ‘শ্রেষ্ঠতম’ বন্ধুটিকে কব্জিবন্দী করতে উঠেপড়ে লাগতে পারেন। একটি হীরের পেছনে কত জনপদের কত বেদনার ইতিহাস থাকে, তা তাদের জানার প্রয়োজন হওয়াটা বাতুলতা হবে।

গ্রাফ জুয়েলারির স্বত্বাধিকারী লরেন্স গ্রাফ ১৯৬০ সালে প্রতিষ্ঠানের গোড়াপত্তন করেন। সেই থেকে বৈচিত্র্যপূর্ণ নকশার বহুমূল্য অলঙ্কারাদি তৈরি করে প্রথম সারির অলঙ্কার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিশ্বজুড়ে নিজেদের অধিষ্ঠান নিশ্চিত করে গ্রাফ জুয়েলারি।

সাত-সতেরো প্রতিবেদক