১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পরিবেশবান্ধব খাতে ঋণ বিতরণ বৃদ্ধি


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পরিবেশবান্ধব খাতে ব্যাংকগুলোর ঋণ বিতরণের পরিমাণ বেড়েছে। ২০১৪ সালে এই খাতে ব্যাংকগুলো প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে মোট ৪৫ হাজার ৫৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে। এর মধ্যে সরাসরি পরিবেশবান্ধব কর্মকাণ্ডে বিতরণ করা হয়েছে ৩ হাজার ৬২৩ কোটি টাকা। আর পরিবেশবান্ধব উপায়ে পরিচালিত হয় এমন বিভিন্ন প্রকল্পে দেয়া হয়েছে ৪১ হাজার ৪২৯ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের গ্রিন ব্যাংকিং এ্যান্ড সিএসআর বিভাগের হালনাগাদ প্রতিবেদন পর্যালোচনায় এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গতবছরের প্রতি প্রান্তিকে আগের প্রান্তিকের তুলনায় পরিবেশবান্ধব খাতে ঋণপ্রবাহ বেড়েছে। অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে এ খাতে ব্যাংকগুলো মোট ১৪ হাজার ৮৯০ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে। এর মধ্যে সরাসরি পরিবেশবান্ধব খাতে দেয়া হয়েছে এক হাজার ১০২ কোটি টাকা। তার আগে জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকে বিতরণ হওয়া ১১ হাজার ৩৬ কোটি টাকার মধ্যে সরাসরি পরিবেশবান্ধব কাজে দেয়া হয় ৯০৯ কোটি টাকা। এপ্রিল-জুন সময়ে পরিবেশবান্ধব খাতে মোট ১১ হাজার ২৫৭ কোটি টাকা বিতরণ হয়েছিল; যার মধ্যে ৯২৫ কোটি টাকা দেয়া হয় সরাসরি পরিবেশবান্ধব কাজে। আর বছরের প্রথম ৩ মাসে (জানুয়ারি-মার্চ) পরিবেশবান্ধব খাতে বিতরণ হওয়া ৭ হাজার ৮৬৯ কোটি টাকার মধ্যে সরাসরি পরিবেশবান্ধব কাজে দেয়া হয় ৬৮৭ কোটি টাকা।

পরিবেশবান্ধব খাতে ঋণপ্রবাহ বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক ম. মাহফুজুর রহমান বলেন, পরিবেশবান্ধব খাতে গঠিত পুনঃঅর্থায়ন তহবিল ব্যবহার নীতিমালা অনেক সহজ করা হয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পুনঃঅর্থায়ন তহবিল ব্যবহারের জন্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে কঠোর নির্দেশনা দেয়ায় এ খাতে ঋণপ্রবাহ ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।

পরিবেশবান্ধব খাতে অর্থায়ন বাড়াতে ব্যাংকগুলোর ঋণ বিতরণ কার্যক্রম নিয়মিত মনিটরিং করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

নবায়নযোগ্য জ্বালানি ও পরিবেশবান্ধব খাতে বিনিয়োগের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিজস্ব অর্থায়নে ২০০ কোটি টাকার একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল রয়েছে। এছাড়া পরিবেশবান্ধব ইটভাটা স্থাপনে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) আর্থিক সহায়তায় ৪০০ কোটি টাকার পৃথক আর একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল রয়েছে।

প্রসঙ্গত, সরাসরি পরিবেশবান্ধব খাত বলতে-ইটিপি, নবায়নযোগ্য জ্বালানি, সৌর শক্তি, জ্বালানি দক্ষ বা সাশ্রয়ী প্রযুক্তি, কঠিন ও তরল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, বিকল্প জ্বালানিসহ কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে নির্ধারিত ৪৭টি পণ্যে ঋণ বিতরণকে বোঝানো হয়। আর পরিবেশবান্ধব উপায়ে তৈরি প্রকল্পের বিতরণ হওয়া ঋণ এ খাতের পরোক্ষ ঋণ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।