২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

টেকনাফে ব্রিজ ধসে মরণ ফাঁদ, চলাচলে দুর্ভোগ


স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ টেকনাফ বাহারছড়া সংযোগ সড়কে ব্রিজের অংশ ভেঙ্গে মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। এতে যানবাহন, পথচারী, শিক্ষার্থীসহ স্থানীয়দের চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। মেরামতের বদলে গত ১৯ মার্চ থেকে ওই সড়কে বাঁশের খুঁটিতে লাল পতাকা লাগিয়ে দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। সড়কের মাঝখানে ভেঙ্গে পড়া ব্রিজে বড় গর্ত পার হতে গিয়ে ছোট-খাট দুর্ঘটনাও ঘটছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় লোকজন। অথচ সরকার দীর্ঘ সংযোগ সড়কটির উন্নয়নে ৬ কোটি ৫৮ লাখ টাকা ব্যয়ে উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়ে কাজ চালিয়ে গেলেও গত ১০ দিন ধরে ধসে পড়া ব্রিজটি সংস্কার না করায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দারা।

স্থানীয় শিক্ষকগণ জানান, ২টি প্রতিষ্ঠানের শ’ শ’ শিক্ষার্থী ঝুঁকি নিয়ে ওই ব্রিজ পার হতে অসাবধানতাবশত মারাত্মক দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। শীলখালী এলাকার ব্যবসায়ী মোহাম্মদ ইউসুফ জানান, সড়কে ভেঙ্গে পড়া ব্রিজে লাল পতাকা পুঁতে দিলে কি দুর্ঘটনা ঘটবে না, এ নিশ্চয়তা কে দেবে। জরুরী ভিত্তিতে টেকনাফ-বাহারছড়া সংযোগ সড়কে ব্রিজটি সংস্কার করতে কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

রাজশাহীতে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহী নগরীর মহিষবাথান এলাকায় প্রভাবশালী ও ধনাঢ্য আইনজীবীর পুত্রবধূর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। হত্যা না আত্মহত্যা এ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। তবে শ্বশুরবাড়ির লোকজন এ ঘটনাকে আত্মহত্যা বলে দাবি করেছেন। রবিবার রাত ৯টার দিকে আইনজীবীর বাড়ি থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় ওয়াহিদা সিফাত (২৭) নামের গৃহবধূকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরী বিভাগের চিকিৎসকরা তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। ওয়াহিদা সিফাত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে মাস্টার্স পাসের পর মহিষবাথান এলাকার আইনজীবী মোহাম্মদ আলী রমজানের ছেলে অস্ট্রেলিয়া ফেরত মোহাম্মদ আশিফ ওরফে পিসলিকে বিয়ে করেছিলেন। বিয়ের পর থেকে আইনজীবী রমজানের ‘শান্তিনীড়’ বাসায় থাকতেন। তাদের দেড় বছরের একটি সন্তান রয়েছে। এলাকাবাসী জানান, রাত ৯টার দিকে সিফাত আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচারের পর তাকে তড়িঘড়ি করে রামেক হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেয়া হয়। তবে তার আগেই তার মৃত্যু হয়। ঘটনার খবর পেয়ে রামেক হাসপাতালে ছুটে আসেন পরিবারের সদস্যরা। নগরীর ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বলেন, এলাকায় সুখী পরিবার ওরা। তবে ঠিক কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা পরিষ্কার নয়। তবে তিনি বলেন, স্বামীর সঙ্গে সকালে তুচ্ছ ঘটনায় কথা কাটাকাটি হয় বলে শুনেছেন।