১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বরিশালের ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ


স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ মেঘনার ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত জেলার হিজলা উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের চরছয়গাঁও এলাকার ভূমিহীন পরিবারের সদস্যরা এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমবেশ করছে। সোমবার সকালে টুমচর প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ভূমি রক্ষা কমিটির আয়োজনে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ভূমি রক্ষা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ টিপু। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ভূমিদস্যু বাহিনীর প্রধান শাহাদাত হোসেন হাওলাদার ভূয়া মিস কেসের মাধ্যমে কাগজ তৈরি করে ছয়গাঁও মৌজার ৮০টি খতিয়ান থেকে প্রায় ২’শ একর জমি নিজে ও তার স্বজনদের নামে নিয়েছে। এছাড়াও হিজলা উপজেলা ভূমি অফিসের কতিপয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সহায়তায় ভূঁয়া কাগজপত্র তৈরি করে শাহদাত ও তার বাহিনী দীর্ঘদিন থেকে হিজলার বিভিন্ন চরাঞ্চলের আরও জমি দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এ সব কাজে শাহাদাত বাহিনী ভূমি সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মকর্তার সিল এবং কয়েক যুগ আগের পুরানো স্ট্যাম্পসহ বিভিন্ন কাগজপত্র ব্যবহার করছেন। তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি সময়ে শাহাদাত বাহিনীর প্রধান শাহাদাত ও ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার আক্তার হোসেনসহ তাদের কতিপয় সহযোগীকে বরিশাল নগরীর হোটেল পার্ক থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নকল সিলমোহর, ভূমি অফিসের ৮ ও ১২নং বালাম বই এবং ভূমি সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রসহ নগর গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে। অতিসম্প্রতি ওই মামলায় কারাগার থেকে জামিনে বেরিয়ে ভূমিদস্যু শাহাদাত হাওলাদার জালিয়াতির কাজে বেপরোয়া হয়ে ওঠে। ভূমিদস্যু শাহাদাতের এ অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন হাওলাদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ফারুকুল ইসলাম সরদার, সাংগঠনিক সম্পাদক ও অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট হাফিজ মাহমুদ প্রমুখ।

ঝালকাঠি পৌর মেয়রের বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝালকাঠি ॥ পৌরমেয়র আফজাল হোসেনের বিরুদ্ধে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে। সোমবার উপ-সচিব মোঃ খলিলুর রহমান স্বাক্ষরিত বরখাস্ত আদেশ প্রত্যাহারের ফ্যাক্স বার্তা ঝালকাঠি জেলা প্রশাসকের কাছে এসেছে। গত ১৯ মার্চ পৌর মেয়ারম্যান চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরক আইনের দুটি মামলায় কারা অন্তরীণ থাকায় মন্ত্রণালয় ১ নং প্যানেল মেয়র প্রণব কুমার নাথকে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব দিয়েছিল স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।