২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সিটি নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবে না সরকার ॥ ও. কাদের


স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সিটি নির্বাচনে সরকার কোন ধরনের হস্তক্ষেপ করবে না বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, এ সরকারের অধীনে ৯টি সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে, যার সাতটিতে জয়লাভ করেছে বিএনপি। এ ফল আমরা মেনে নিয়েছি। আগামী ২৮ এপ্রিল দেশের তিনটি সিটি নির্বাচনে জনগণ যাকে খুশি তাকে ভোট দেবেন। ভোটারদের ইচ্ছায় নির্বাচিত হবেন তাদের প্রতিনিধি।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর সার্কিট হাউসে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সভায় উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর, সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, শামসুল হক, নগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার একেএম শহীদুর রহমান, জেলা পুলিশের এসপি একেএম হাফিজ আকতার প্রমুখ। সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন।

মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি একদিকে সিটি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে, অপরদিকে আন্দোলনের কর্মসূচীও দিচ্ছে। এটি দ্বিচারিতা। তাদের আন্দোলনের রূপ এদেশের মানুষ দেখেছে। আন্দোলনের নামে চালানো হয়েছে নাশকতা, পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ হত্যা ও গাড়ি পোড়ানো। স্কুল পর্যায়ের পাঠ্যপুস্তক বহনকারী গাড়িতে পর্যন্ত আগুন দিয়েছে তারা। মন্ত্রী বলেন, সিটি নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে অনুষ্ঠানে সরকার কোন ধরনের হস্তক্ষেপ করবে না। নিরপেক্ষ নির্বাচনে এ সরকার কতটা আন্তরিক তার প্রমাণ আগেই দিয়েছে।

কর্ণফুলী টানেলের ফিজিক্যাল ওয়ার্ক শুরু ডিসেম্বরে ॥ কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেলের ফিজিক্যাল ওয়ার্ক শুরু হবে চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে। চুক্তির পর পরামর্শক প্রতিষ্ঠান টানেলের ডিজাইন দাখিল করবে। এরপর সে অনুযায়ী এর নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

সোমবার সকালে চট্টগ্রাম নগরীর নেভাল একাডেমির সামনে টানেল এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি জানান, পরামর্শক নিয়োগে বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষর হবে আগামী জুনের মধ্যে। এরপর পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ডিজাইন চূড়ান্ত করবে। প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে এ টানেল নির্মাণ কাজ শেষ হবে চার বছরের মধ্যে। টানেলটি নির্মিত হলে কর্ণফুলীর দক্ষিণ পাড়ে গড়ে উঠবে আরেকটি শহর। টানেল এলাকা পরিদর্শনকালে মন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর, সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, শামসুল হক চৌধুরী এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তারা।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: