২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বর্ষীয়ান অভিনেতা সিরাজুল ইসলাম আর নেই


স্টাফ রিপোর্টার ॥ না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন বর্ষীয়ান অভিনয়শিল্পী সিরাজুল ইসলাম। মঙ্গলবার সকাল নয়টায় তিনি রাজধানীর নিকেতনের নিজ বাসায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন তিনি। স্ত্রী সৈয়দা মারুফা ইসলাম, এক ছেলে মোবাশ্বেরুল ইসলাম, দুই মেয়ে ফাহমিদা ইসলাম ও নাহিদা ইসলামসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁকে বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়।

১৯৩৮ সালের ১৫ মে পশ্চিমবঙ্গের হুগলী জেলায় জন্মগ্রহণ করেন সিরাজুল ইসলাম। কৈশোরে মঞ্চনাটকে কাজ করেছেন। বেতারে কাজ শুরু করেন ক্যাজুয়াল আর্টিস্ট হিসেবে। ১৯৫৬ সালে তদানীন্তন পাবলিক রিলেশন ডিপার্টমেন্টে যোগদান করেন। মহীউদ্দিন পরিচালিত ‘রাজা এলো শহরে’ ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে সিরাজুল ইসলামের অভিষেক ঘটে। প্রায় তিন শ’ ছবিতে সিরাজুল ইসলাম অভিনয় করেছেন। তাঁর অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হচ্ছেÑ ‘নাচঘর’, ‘অনেক দিনের চেনা’, ‘শীত বিকেল’, ‘বন্ধন’, ‘ভাইয়া’, ‘রূপবান’, ‘উজালা’, ‘১৩ নং ফেকু ওস্তাগার লেন’, ‘নয়নতারা’, ‘আলীবাবা’, ‘চাওয়া পাওয়া’, ‘গাজী কালু চম্পাবতী’, ‘নিশি হলো ভোর’, ‘সপ্তডিঙ্গা’, ‘মোমের আলো’, ‘ময়নামতি’, ‘যে আগুনে পুড়ি’, ‘দর্পচূর্ণ’, ‘জাহা বাজে শাহনাই’, ‘বিনিময়’, ‘ডুমুরের ফুল’ ইত্যাদি।

১৯৮৪ সালে ‘চন্দ্রনাথ’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান সিরাজুল ইসলাম। সিরাজুল ইসলাম পরিচালিত প্রথম ছবির নাম ‘জননী’। এরপর নির্মাণ করেন ‘সোনার হরিণ’ ছবিটি। ত্রিশটিরও বেশি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেছেন তিনি। সিরাজুল ইসলাম সর্বশেষ ‘আড়ং’ ছবিতে কাজ করেছেন। সিনেমায় অভিনয়ের পাশাপাশি অসংখ্য টেলিভিশন নাটকেও অভিনয় করেছেন তিনি।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: