১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে রংপুরে বাসদের অবস্থান কর্মসূচী


স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর ॥ তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় ও উত্তরাঞ্চলের প্রাণ-প্রকৃতি-মানুষ রক্ষার দাবিতে বাসদ (মার্কসবাদী) রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান ও প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেছে। বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান চলাকালে সমাবেশে বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় কার্য পরিচালনা কমিটির সদস্য ওবায়দুল্লাহ মুসার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কার্য পরিচালনা কমিটির সদস্য শুভাংশু চক্রবর্ত্তী, বর্ধিত ফোরামের সদস্য আহসানুল হাবীব সাঈদ, মনজুর আলম মিঠু, রংপুর জেলার সমন্বয়ক আনোয়ার হোসেন বাবলু, বগুড়া জেলা সমন্বয়ক সামছুল আলম দুলু, পঞ্চগড় জেলা সমন্বয়ক তরিকুল আলম, দিনাজপুর জেলা সমন্বয়ক রেজাউল ইসলাম সবুজ, কুড়িগ্রাম জেলা সমন্বয়ক মহির উদ্দিন, ঠাকুরগাঁও জেলা সমন্বয়ক মাহবুব আলম রুবেল, রংপুর জেলা কমিটির সদস্য পলাশ কান্তি নাগ, আহসানুল আরেফিন তিতু প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, তিস্তা নদী তীরবর্তী মানুষের জীবন ও জীবিকার সঙ্কট এখন আরও বেড়েছে। নদীতে পানি নেই। ধু-ধু বালুচর। পানিহীন শুকনো সেচখাল। হাজার হাজার হেক্টর জমির ফসল শুকিয়ে যাচ্ছে তিস্তায় পানি না থাকার কারণে। এছাড়া মাটির নিচে পানির স্তর আরও নিচে নেমে গেছে। ফলে শুরু হয়েছে মরুকরণ। তিস্তাপারের জীবন প্রকৃতি ধ্বংসের মুখে। কৃষিপ্রধান রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় কৃষি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। ফলে বর্ষাকালে নদীভাঙ্গন ও বন্যার কবলে পড়ে হাজার হাজার হেক্টর জমি নদীগর্ভে হারিয়ে যাচ্ছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, ভারত সরকার একতরফাভাবে তিস্তার পানি প্রত্যাহার করে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে। ১৯৭১ সালে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদ ‘জলপ্রবাহ কনভেনশন’ এ পানি প্রবাহের ক্ষেত্রে চুক্তি ও ন্যায়পরায়নতা নীতিমালা গ্রহণ করে। এর মূল কথা হলো, উজানের কোন দেশ ভাটির কোন দেশের স্বাথর্ ক্ষুন্ন করে একক সিদ্ধান্তে পানি আটকাতে পারে না। অথচ ভারত এই কাজটিই করছে।