১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ফ্রান্সে যাত্রীবাহি জার্মান বিমান বিধ্বস্ত॥ ১৫০ আরোহী নিহত


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ ফ্রান্সে ১৫০ আরোহী নিয়ে জার্মানির একটি যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। এয়ারবাস এ৩২০-তে ১৪৪ আরোহী এবং ছয়জন ক্রু ছিল। বিমানটির আরোহীদের কেউ বেঁচে নেই বলে ফরাসী কর্মকর্তারা নিশ্চিত করেছেন। ফরাসী ও জার্মান নেতৃবৃন্দ বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার খবরে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বিধ্বস্ত বিমানটির ব্ল্যাকবক্স পাওয়া গেছে বলে ফরাসী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানিয়েছেন। বিমানটির আরোহীদের মধ্যে ১৬ জার্মান স্কুলশিক্ষার্থীও ছিল। ফ্লাইট ফোরইউ ৯৫২৫ স্পেনের বার্সিলোনা থেকে জার্মানির ডুসেলডর্ফ যাচ্ছিল। ফ্রেঞ্চ আল্পসের বার্সিলেনেত্তো ও ডিগনের মধ্যবর্তী এলাকায় বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। খবর বিবিসি অনলাইনের।

ফরাসী প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ বলেন, বিমানটির দুর্ঘটনার কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে আমাদের ধারণা, আরোহীদের কেউ বেঁচে নেই। তিনি এ ঘটনাকে মর্মান্তিক হিসেবে অভিহিত করেন এবং ভুক্তভোগীদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন।

একটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সকাল ১০টা ৪৭ মিনিটে বিমানটি থেকে একটি বিপদ সঙ্কেত পাঠানো হয়।

আঞ্চলিক পরিষদ প্রধান এরিক সিওত্তি বলেন, দুর্ঘটনাস্থল মিলান-রিভেলসে উদ্ধারকারী দল পাঠানো হয়েছে। কমপক্ষে একটি হেলিকপ্টার দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে।

ফরাসী প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভলস বলেন, স্বরাষ্ট্র্রমন্ত্রী বার্নার্দ কেজনুয়েভেকে দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে। দুর্ঘটনার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য সমন্বয়ের জন্য একটি সঙ্কটকালীন বিভাগ খোলা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে দুই হাজার মিটার উচ্চতায় বিমানটির ধ্বংসের আলামত দেখা গেছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পিয়েরে হেনরি ব্রানডেট বিএফএম টিভিকে বলেন, এলাকাটি দুর্গম হওয়ায় উদ্ধার অভিযান অনেক কঠিন এবং দীর্ঘ হবে।

জার্মান চ্যান্সেলর এ্যাঙ্গেলা মেরকেল বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনায় গভীর দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এ সময় আমরা সবাই গভীরভাবে মর্মাহত। মেরকেল দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: