২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ওয়াহাব-ওয়াটসনের জরিমানা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শুরু থেকেই ম্যাচের উত্তাপটা ছিল অনেক। সেøজিংয়ে সিদ্ধহস্ত অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটাররা সেই উত্তাপ আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত ম্যাচে। পাকিস্তান দল ব্যাটিংয়ে নামার পর থেকেই তাই কথা চালাচালির শুরু। সেটা এক পর্যায়ে আর উস্কানিমূলক কথার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। পাকিস্তানী পেসার ওয়াহাব রিয়াজ ও অসি অলরাউন্ডার শেন ওয়াটসন তীব্র বিত-ায় লিপ্ত হয়েছেন। সেটাকে আইসিসি নিজেদের আইন বিরুদ্ধে অসৌজন্যমূলক ও শৃঙ্খলাভঙ্গ বিষয় হিসেবেই বিবেচনা করেছে। এ কারণে উভয় ক্রিকেটারকে জরিমানা করা হয়েছে। এ্যাডিলেডে ওভালে পাকিস্তান দল ব্যাটিংয়ে নামার পর থেকেই অসি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার সেøজিং করে গেছেন নিয়মিত হারে। সেøজিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার অন্য ক্রিকেটারদের সঙ্গে পরে যোগ দিয়েছেন পাক ক্রিকেটাররাও। সেটা আর সহনীয় পর্যায়ে থাকেনি ওয়াহাব-ওয়াটসনের মধ্যে। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস চলার সময় ৩৩তম ওভারে বিত-া আর তর্কে লিপ্ত হন এ দুই ক্রিকেটার। শেষ পর্যন্ত মাঠে দায়িত্ব পালনরত দুই আম্পায়ারকেই হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে। দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে কথা বলে উভয়কে শান্ত করেন আম্পায়াররা। এটাকে আইসিসি আচরণবিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন হিসেবেই নিয়েছে। আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে অভিযুক্ত হতে হয়েছে তাদের। সেই অপরাধে শনিবার জরিমানার শিকার হয়েছেন ওয়াহাব ও ওয়াটসন। আচরণবিধি ভঙ্গের দায়ে ওয়াহাবকে তার ম্যাচ ফি’র ৩০ শতাংশ এবং ওয়াটসনকে ১৫ শতাংশ জরিমানা করেছে আইসিসি। এ বিষয়ে ম্যাচ রেফারি রঞ্জন মাদুগল বলেন, ‘শুরুতে এই ক্রিকেটারের দ্বন্দ্বের বিষয়টি স্বাভাবিক পর্যায়ে থাকলেও ম্যাচের শেষদিকে তারা জরিমানার সীমাকেও অতিক্রম করে গেছেন। ক্রিকেট মাঠে এ ধরনের আচরণ মোটেও গ্রহণযোগ্য নয়।’ পরে এ বিষয়ে আইসিসি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে কোন ধরনের জিজ্ঞাসাবাদ বা শুনানিতে যাওয়া থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে দুই ক্রিকেটারকে। এ বিষয়ে আইসিসির বিবৃতি, ‘ঘটনাটি অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের ৩৩তম ওভারের শেষদিকে ঘটে। সে সময় ওয়াটসন আম্পায়ারদের নিষেধ অগ্রাহ্য করে ওয়াহাবের সঙ্গে তর্কে লিপ্ত হয়েছেন। সে সময় বেশ আক্রমণাত্মক ও অশালীন ভাষা ব্যবহার করেছেন উভয় ক্রিকেটার।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: