২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বাউফলে সাংবাদিক গ্রেফতার, নির্যাতন


নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ১৮ মার্চ ॥ পুলিশকে মারধর ও সরকারী কাজে বাধাদানের অভিযোগে প্রথম আলোর বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি এবিএম মিজানুর রহমান(৩৫)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সন্ধায় কালাইয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে বন্দরের ল্যাড়া মুন্সির ব্রিজের কাছে সাংবাদিক মিজানের সাথে কালাইয়া নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির দারোগা হালিম খানের সাথে একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে দারোগা হালিম সাংবাদিক মিজানকে আপত্তিকর ভাষায় গালি দিলে মিজান তাকে কিল-ঘুষি মারেন। এসময় দারোগা হালিম সাংবাদিক মিজানকেও পাল্টা কিল-ঘুষি মারেন। বিষয়টি ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে বুঝতে পেরে সাংবাদিক মিজান দারোগা হালিমকে তার মোটরসাইকেলে করে নৌ-পুলিশ ফাঁড়িতে পৌঁছে দিয়ে ফেরার পথে গ্রেফতার হন। এ খবর পেয়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা নৌ-পুলিশ ফাঁড়িতে গিয়ে বিষয়টি নিম্পত্তি করার প্রস্তাব দিলে পুলিশ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের দোহাই দিয়ে তাকে সেখান থেকে বাউফল থানায় নিয়ে আসেন। পরে তার বিরুদ্ধে পুলিশকে মারধর ও সরকারী কাজে বাধা প্রদানের অভিযোগ এনে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। সাংবাদিক মিজানের স্ত্রী শামীম-আরা অভিযোগ করেন, থানায় নেয়ার পর পুলিশ মিজানকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করেছে।

মামলায় আসামি দেড় শতাধিক ॥ আরও চার শিবিরকর্মী গ্রেফতার

কুড়িগ্রামে জামায়াত-পুলিশ সংঘর্ষ

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ কুড়িগ্রাম সদরের পাটেশ্বরী বাজার এলাকায় পুলিশের ওপর জামায়াত-শিবিরের হামলার ঘটনায় বুধবার আরও ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেনÑ আবু মেম্বার (৬০), আব্দুস সালাম (৫২), আব্দুল কাদের (১৬) ও ইসমাইল হোসেন (১৩)।

এ নিয়ে গ্রেফতারের সংখ্যা দাঁড়াল ৭ জনে। গ্রেফতারের ভয়ে পাটেশ্বরী ক্লিনিকপাড়া এখন পুরুষশূন্য। কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মুর্শেদুল করিম মোহাম্মদ ইহতেশাম জানান, মঙ্গলবার জামায়াত-শিবিরের মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ৩৭ জনের নাম উল্লেখ করে আরও অজ্ঞাত দেড় শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রেখে অন্য আসামিদের গ্রেফতার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।