১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আসছে বন্দুকবাজ শ্যেন পেন


হলিউডে দাপটের সঙ্গে রাজত্ব কায়েম করাটা চাট্টিখানি কথা নয়। আর তা যদি ৫৫ ছুঁই ছুঁই বয়েসেও সম্ভব হয় তা হলে তো কথাই নেই; সময়ের ভিন্নœ ভিন্ন চাহিদায় নিজেকে নিয়ে পরীক্ষা করেছেন বারংবার এবং সফলতার এক অনন্য উচ্চতায় নিজেকে বসিয়েছেন, যে স্থান এখনও হলিউডের বেশিরভাগ তারকার নিকট অস্পর্শ ও অকল্পনীয়। বিখ্যাত চিত্রশিল্পী সালভাদর ডালি বলেছিলেন, “মাঝে মাঝে মনে হয় জীবনে মাত্রাতিরিক্ত পূর্ণতার মধ্যেও আমি মৃত্যুর কোলে ঢলে পরছি। আর অন্যদিকে একজন তারকা আমেরিকান বহুমাত্রিক অভিনেতা, চলচ্চিত্র পরিচালক, সোস্যাল এ্যাকটিভিস্ট আর সফল রাজনীতিবিদ হিসেবে জীবনের প্রতিটিক্ষেত্রে পূর্ণতার অতল গহীনে অনবরত নিমজ্জন করেছেন এমনি একজন চলচ্চিত্র আইকন। যিনি মিডিয়া আকর্ষণের জন্য ১৯৮৫ হতে ১৯৮৯ পর্যন্ত হালের বিখ্যাত গায়িকা ও সৌন্দর্যের দেবীখ্যাত পপগায়িকা ম্যাডোনার স্বামী ছিলেন যা তার দ্যুতিকে আরও আলোকময় করেছিল। এমনকি পপ গায়িকা ম্যাডোনা তার ‘ট্রু ব্লু’ নামে থার্ড স্টুডিও এ্যালবাম ‘দ্য কুলেস্ট গাই ইন দ্য ইউনিভারস’ পেনের নামে উৎসর্গও করেছিলেন। এছাড়াও বিখ্যাত সুন্দরী অভিনেত্রী ‘রবিন রাইট’-এর প্রাণভোমরাও ছিলেন ১৯৯৬ থেকে ২০১০ পর্যন্ত। তিনি বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক পিতার বিখ্যাত পুত্র ২০০৩ সালে হলিউড ফিল্ম ‘মিস্টিক রিভার’ এবং ২০০৮ সালে ‘মিল্ক’-এ সেরা অভিনয়ের জন্য একাডেমিক এ্যাওয়ার্ড পাওয়া গণতান্ত্রিক ভাবাদর্শের অভিনেতা ‘শ্যেন পেন জাস্টিন।” শ্যেন পেন জাস্টিনÑ যিনি ২০০২ সালে ইরাক প্রশ্নে বুশ এ্যাডমিনিসট্রেশনের মিলিটারি স্ট্রাইকের বিরুদ্ধে মাঠে নেমে করেছেন ‘এন্টি ওয়ার র‌্যালি’ এবং ২০০৫ সালে ইরাক পরিদর্শনেও গিয়েছিলেন। যিনি ২০১২ সালে সিরিয়াকে সমর্থন দানে সবর্ক্ষণ ভেনিজুয়েলার ‘হুগো চ্যাভেজের’ পাশে থেকেছেন, সমর্থন দিয়েছেন সমকামিতাকেও। শ্যেন পেন সর্বদা থেকেছেন ২০০৫ সালে হারিক্যান ক্যাটরিনা এবং ২০১০ সালে হাইতি ভূমিকম্পে আক্রান্ত মানুষের পাশে। ১৯৯১ সালে বিখ্যাত সিঙ্গার ব্রুশ স্প্রিংটনের ‘হাইওয়ে পেট্রোলম্যান’ গানকে ভিত্তি করে পেন ‘ইন্ডিয়ান রানার’ ফিল্ম দিয়ে হলিউডে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তার পরিচালিত ‘ইন টু দ্য ওয়াইল্ড’ এবং ‘দ্য প্লেজ’ আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল হলিউড জগতে। ১৯৭৪ সালে বাবা পরিচালক লিও পেনের টেলিভিশন সিরিজে ’লিটল হাউস অন দ্য প্যারিরি’ মাধ্যমে রঙ্গিন জগতে হাতেখড়ি ‘ব্যাড বয়’ শ্যেন পেনের। এরপর একে একে ভক্তদেরকে উপহার দিয়েছেন ‘ডেডম্যান ওয়াকিং’, ‘দ্য আসাসিন্যাশন অব রিচাড নিক্সন’, ’ফেয়ার গামে’ ‘সুইট এ্যান্ড লোডাউন’, ‘সি ইজ সো লাভলি’ ‘দ্য ট্রি অব লাইফ’ ইত্যাদির মতো অসামান্য সব ফিল্ম। তবে ভক্তদের জন্যে খুশির সংবাদ এই যে, আগামী মার্চের ২০ তারিখ, ২০১৫ তে পরিচালক পিয়ের মোরেলের এ্যাকশান থ্রীলারধর্মী ফিল্ম ‘দ্য গানম্যান এ শ্যেন পেন বন্দুকবাজ হিসেবে নতুনভাবে পর্দায় আসছেন। এ্যাকশন ফিল্মে নবজন্ম হওয়া শ্যেন পেন তার এই দ্য গানম্যান ফিল্মে বড় পর্দায় আসবেন ভিন্ন মাত্রা নিয়ে। আর সঙ্গে তো রয়েছে শক্তিমান অভিনেতা ইদ্রিস ইলাবা, অভিনেত্রী জুই ত্রিঙ্কা। আর রয়েছে রে ওইন স্টন, জেভিয়ার বারদেম এর মতো তারকা। এ্যান্টন ক্যাপিটাল প্রোডাকশন এর ব্যানারে জেন প্যাট্রিক ম্যাঞ্চিত্তি এর ‘দ্য প্রন গানম্যান’ কাহিনী অবলম্বনে নির্মিত এ ফিল্মে পেনকে দেখা যাবে এক সাবেক বিশেষ বাহিনী সৈনিক এবং চুক্তিবদ্ধ সামরিক বন্দুকবাজ হিসেবে। যিনি পিটিএসডি তে ভুগছেন। যিনি তার দীর্ঘ সময়ের ভালবাসা পুনরায় প্রতিস্থাপনের জন্যে চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তবে সেই কাজ করতে তাকে ছুটে যেতে হবে ইউরোপের বার্সিলনা থেকে লন্ডনের দিকে। আমেরিকান এ্যাকশন থ্রীলারধর্মী ফিল্ম ‘দ্য গানম্যানে এই ইন্টারন্যাশনাল আমেরিকান অপারেটিভ দুনিয়ার সমস্ত গেইম হতে নিজেকে সরিয়ে ভালবাসার জন্যে দিগি¦দিক ছুটে যায়। তবে ‘দ্য গানম্যান’ ফিল্মের পূর্ণ আকর্ষণ উপভোগ করতে ভক্তদের অপেক্ষা করতে হবে ২০ মার্চ পর্যন্ত। দর্শকগণ, কি সেই পর্যন্ত অপেক্ষা করার ধৈর্য্য আছে তো?

পান্থ আফজাল