১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পাকিদের দুঃসংবাদ- বিশ্বকাপ শেষ ইরফানের


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ পাকিস্তানের জন্য বড় দুঃসংবাদ। ইনজুরিতে বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল পেসার মোহাম্মদ ইরফানের। নিতম্বের চোটের জন্য পুল পর্বে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচে পাওয়া জয়ের দিনে খেলতে পারেননি দীর্ঘদেহী দ্রুতগতির এই বোলার। ডাক্তারী পরীক্ষার ফল হাতে পাওয়ার পর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) পক্ষ থেকে জনানো হয়েছে, কোয়ার্টার ফাইনাল তো বটেই, বিশ্বকাপই শেষ ইরফানের। শুক্রবার এ্যাডিলেড ওভালে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ‘হাইপ্রোফাইল’ কোয়ার্টারে সেমির টিকেটের জন্য লড়বে ১৯৯২-এর চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। তার আগে প্রধান স্ট্রাইক বোলারের ছিটকে যাওয়া দলটির জন্য বড় দুঃসংবাদই।

অবৈধ এ্যাকশনের বেড়জালে পড়ে আগেই বিশ্বকাপের দলে ছিলেন না স্পিন জাদুকর সাঈদ আজমল। ইনজুরির জন্য শেষ মুহূর্তে বাদ পড়েন পেসার জুনায়েদ খান, এরপর অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজকেও একই পরিণতি বরণ করতে হয়। ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে প্রথম দুই ম্যাচেই হেরে বসে মিসবাহ-উল হকের দল। কোয়ার্টারের পথে জিততেই হবে এমন সমীকরণে পরের সব ম্যাচ জিতে শেষ আটে জায়গা করে নেয় তারা। ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার মাঝেও দলকে কোয়ার্টারে তুলে আনার রূপকার পেস বোলাররা, যেখানে অগ্রভাগে ছিলেন ইরফান। চমৎকার বোলিং করে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের জন্য আতঙ্ক হয়ে উঠছিলেন তিনি। নিতম্বের চোটের জন্য আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামতে পারেননি। নির্বাচকরা তাই আগে থেকেই শঙ্কায় ছিলেন।

শেষ অবধি সেটিই সত্য হলো। দুরন্ত বোলিংয়ে আসরে ৮ উইকেট তুলে নেয়া পেসাররে দুঃসংবাদ জানিয়ে পিসিবির বিবৃতিতে বলা হয়, ‘সোমবারই ইরফানের এমআরআই স্ক্যান করানো হয়েছে। রেডিওলজিস্টের রিপোর্টে তার পেলভিসে (নিতম্বে) চোটের চিহ্ন পাওয়া গেছে। বিষয়টি এখনও সমাধান হয়নি। তবে এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার ওর খেলার সম্ভাবান শূন্যের কোঠায়।’ দলের ফিজিও ব্রাড রবিনসন অবশ্য ইনিয়ে বিনিয়ে নয়, পরিষ্কার করেই বলে দিয়েছেন, ‘নিতম্বের চোটে ইরফানের বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেছে।’ ইরফানের ছিটকে যাওয়াটা দলের জন্য বড় ক্ষতি বলেই দেখছেন মিসবাহ-উল হক।

পাকিস্তান অধিনায়ক বলেন, ‘ইরফান আসলেই ব্যতিক্রম এক বোলার। শারীরিক গড়ন, গতি, বুদ্ধিমাত্তায় প্রতিপক্ষের জন্য ও এক সত্যিকারের আতঙ্ক। আমাদের জন্য পরিস্থিতিটা আরও কঠিন হয়ে গেল। কারণ নিষেধাজ্ঞার কারণে এমনিতে আজমল-হাফিজ নেই, তার ওপর শেষ মুহূর্তে জুনায়েদকে হারাতে হয়েছে। এখন ইরফান। এটা আসলেই দুঃসংবাদ।’ ও হ্যাঁ ইনজুরি-ফিটনেসের অভাবে বিশ্বকাপে নেই স্বল্পদৈর্ঘীয় ক্রিকেটে দলটির অন্যতম সফল পেসার উমর গুলও, সেটিও উল্লেখ করেন অধিনায়ক। কেবল মিসবাহই নয়, সাবেক তারকা ওয়াসিম আকরাম, বর্তমান ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজাও মনে করেন কোয়ার্টারের আগে ইরফানের এভাবে ছিটকে যাওয়ার ক্ষতি ভোগাবে দলকে। ‘টুর্নামেন্টে বল হাতে ইরফান ছিল সত্যিকারের ভয়ঙ্কর এক নাম। ওর অনুপস্থিতিতে দল সাজাতে সমস্যায় পরতে হবে।’ বলেন ওয়াসিম।

৩২ বছর বয়সী ইরফান এ পর্যন্ত দেশের হয়ে ৪৫ ওয়ানডে খেলে নিয়েছেন ৬৫ উইকেট। বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচে ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরে খাদের কিনায় পড়া পাকিদের ঘুরে দাঁড়ানোর পথে দারুণ ভূমিকা ছিল ৭ ফুট ১ ইঞ্চি উচ্চতার এই পেসারের। পাঁচ ম্যাচে ৮ উইকেট নেয়া ইরফান ওভার প্রতি রান দিয়েছেন মাত্র ৪.৫৩ করে।