২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মিসরে ব্রাদারহুড প্রধানসহ ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড


মিসরে নিষিদ্ধ ঘোষিত মুসলিম ব্রাদারহুডের প্রধান মোহাম্মদ বদিসহ ১৩ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। সহিংসতার অভিযোগে সোমবার তাদের এই দণ্ড দেয়া হয়। খবর বিবিসির।

এর আগেও কয়েকটি আদালত বিভিন্ন অপরাধে বদিকে মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করেছিল। পরবর্তী সময়ে দণ্ড কমিয়ে তাকে যাবজ্জীবন কারাবাসের সাজা দেয়া হয়েছে। ২০১৩ সালে মুসলিম ব্রাদারহুডকে (এমবি) সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে মিসর সরকার। ফৌজদারি আদালতের এই রায় দেশটির সর্বোচ্চ ইসলামিক কর্তৃপক্ষ গ্র্যান্ড মুফতির কাছে বিবেচনার জন্য পাঠানো হবে। এটি একটি আনুষ্ঠানিকতা। এই রায়ের বিরুদ্ধে এখনও আপীল করার সুযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে চূড়ান্ত রায় দেয়ার জন্য ১১ এপ্রিল পরবর্তী দিন ধার্য করা হয়েছে। এর আগে দেশটিতে ২০১৪ সালের এপ্রিলে এক গণবিচারের রায়ে ৬৮৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল। ওই রায়ের বিরুদ্ধে তখন বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার গোষ্ঠীগুলো সোচ্চার হয়ে ওঠে।

২০১৩ সালের জুলাইয়ে সরকারবিরোধী ব্যাপক বিক্ষোভের পথ ধরে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মুসলিম ব্রাদারহুডের মোহাম্মদ মুরসিকে ক্ষমতাচ্যুত করে মিসরের সেনাবাহিনী। এরপর থেকে ইসলামপন্থী সংগঠনটির বিরুদ্ধে কঠোর দমননীতি গ্রহণ করে সরকার।-

পাকিস্তানে ১০ খুনীর ফাঁসি কার্যকর

পাকিস্তান মঙ্গলবার দেশের বিভিন্ন স্থানে ১০ জন দোষী সাব্যস্ত খুনীকে ফাঁসি দিয়েছে। মৃত্যুদ-ের ওপর ৬ বছরের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের পর একদিনে প্রাণদণ্ড কার্যকর করার এটি সর্বোচ্চ সংখ্যা বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ৮ জন সাজাপ্রাপ্তকে জনবহুল পাঞ্জাব প্রদেশে এবং আরও ২ জনকে দক্ষিণাঞ্চলীয় মহানগরী করাচীতে ফাঁসি দেয়া হয়। নাম না প্রকাশ করার শর্তে কারাগার কর্মকর্তারা একথা জানান। খবর এএফপির।

গত ডিসেম্বরে আক্রান্ত উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে তালেবান জঙ্গীরা একটি স্কুলে ১৫৪ জনকে- যাদের অধিকাংশই শিশু গুলি করে হত্যার পর পাকিস্তান আবার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা শুরু করলে এ পর্যন্ত মোট ৩৭ জন দণ্ডিত অপরাধীকে ফাঁসিতে ঝুলানো হলো।