২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

টাঙ্গাইলে ছাত্রী ধর্ষণ তদন্তে প্রমাণ পাওয়ায় শিক্ষককে বহিষ্কারের সুপারিশ


নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ১৫ মার্চ ॥ ধনবাড়ী উপজেলার গাড়াখালী উচ্চবিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আজিজুল হকের হাতে যৌন হয়রানির ঘটনায় অবশেষে শনিবার রাতে ধনবাড়ী থানায় মামলা হয়েছে। এদিকে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে তদন্ত কমিটি অভিযুক্ত শিক্ষককে দোষী সাব্যস্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট জমা দিয়েছেন। অপরদিকে এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষকের নানামূখী হুমকির মুখে শিক্ষার্থী এখনও বিদ্যালয়ে যেতে পারছে না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ শরিফুল ইসলাম জানান, তদন্তে শিক্ষকের হাতে স্কুলছাত্রী যৌন হয়রানির ঘটনাটি সত্য প্রমাণিত হওয়ায় রবিবার সকালে অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে বহিষ্কারসহ বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশসহ উর্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন প্রেরণ করা হয়েছে। এদিকে তদন্তে ঘটনা সত্য প্রমাণিত হওয়ায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষক মরিয়া হয়ে উঠেছে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে। এ অবস্থায় শনিবার রাতে শিক্ষক আরও ৩/৪ জন শিক্ষকের সহায়তায় ভিকটিম ওই স্কুলছাত্রী ও তার বাবা শফিকুল ইসলামকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে ধনবাড়ী উপজেলা সদরের চালাষ চৌরাস্তা মোড়ের একটি বাসায় আটকিয়ে রাখে এবং সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়। খবর পেয়ে ধনবাড়ী থানার ওসি মিজানুর রহমান অভিযান চালিয়ে ওই বাসা থেকে স্কুলছাত্রী ও তার বাবাকে উদ্ধার করে এবং স্বাক্ষর নেয়া সকল কাগজপত্র জব্দ করেন। এ সময় এ কাজে সহায়তা করার অভিযোগে গাড়াখালী উচ্চবিদ্যালয়ের অফিস সহকারী বাবলু মিয়াকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রী নিজে বাদী হয়ে ধনবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করে। ওসি মিজানুর রহমান জানান, গ্রেফতার করা অফিস সহকারী বাবলু মিয়াকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রবিবার কোর্টে চালান দেয়া হয়েছে।