২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

প্রধানমন্ত্রী হত্যা চেষ্টায় একটি আত্মঘাতী স্কোয়াড চিহ্নিত


সংসদ রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রীর পর স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও জানালেন, আদালত থেকে প্রেরিত বিএনপির গুলশানের কার্যালয় তল্লাশি এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের ‘ওয়ারেন্ট’ থানায় আসামাত্রই তা প্রতিপালন করা হবে। আমরা যা কিছু করছি সব আইনের মধ্যে থেকেই করছি। আইনের বাইরে কোনকিছু করতে চাই না। ওয়ারেন্ট পাওয়ামাত্রই তা কার্যকর করা হবে। আর ওয়ারেন্ট কেন আসছে না তা আমার মন্ত্রণালয় নয়, আইনমন্ত্রী ভাল বলতে পারবেন।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারী দলের সংসদ সদস্য মহিবুর রহমান মানিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীকে হত্যায় আত্মঘাতী স্কোয়াড গঠনের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে এ্যাডভোকেট তারানা হালিমের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, সংসদ সদস্য যথার্থই বলেছেন। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে প্রায়শই নানা ধরনের ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ষড়যন্ত্রকারীরা বসে নেই। ষড়যন্ত্রকারীরা নানাভাবে আবির্ভূত হওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু আমাদের গোয়েন্দা সংস্থা ইতোমধ্যে এ ধরনের একটি ষড়যন্ত্র চিহ্নিত করেছে। ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারে সর্বাত্মক অভিযান চলছে।

হুইপ শহীদুজ্জামান সরকারের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, নাশকতা, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদী তৎপরতা প্রতিরোধে পুলিশ বাহিনীতে আলাদা কাউন্টার টেররিজম ইউনিট গঠনের পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়া সাইবার ক্রাইম ইউনিট গঠন করা হচ্ছে। এছাড়া দেশের মানুষের নিরাপত্তা বিধানে পুলিশ বাহিনীতে ৫০ হাজার লোকবল বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

শরীফ আহমেদের প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, জাতির পিতার পলাতক খুনীদের দেশে ফিরিয়ে এনে সাজা কার্যকর করার জন্য আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়কে সভাপতি করে একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে। আইন অনুযায়ী খুনীদের সম্পত্তি ক্রোক ও বাজেয়াপ্ত করার পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। তিনি জানান, ইন্টারপোলের সহায়তায় বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ছবি সংবলিত তথ্য আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরগুলোতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি জানান, আমেরিকায় অবস্থানকারী রাশেদ চৌধুরী এবং কানাডায় অবস্থানকারী নূর চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে আনতে উভয় দেশের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত আছে। এছাড়া পলাতকরা যাতে অন্য কোন দেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করতে না পারে ( যেমন যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা) সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দেশসমূহকে অনুরোধ করা হয়েছে।

সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য সাবিনা আখতার তুহিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাঁর স্বামী ও পুত্রকে হত্যার হুমকির বিষয়টি উল্লেখ করে প্রতিকার দাবি করলে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানান, বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। দুষ্কর্মে যে-ই জড়িত থাকুক, দেশে থাকলে অবশ্যই তাদের গ্রেফতার করা হবে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে বের করতে গোয়েন্দা সংস্থা কাজ করে যাচ্ছে।

আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, পাসপোর্টের মেয়াদ ৫ বছর থেকে বাড়িয়ে ১০ বছর করার নীতিগত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। তাছাড়া পাসপোর্টের মেয়াদ ১৫ বছর করার কোন পরিকল্পনা নেই।

এম আবদুল লতিফের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, নারী পাচার রোধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মুখ্য ভূমিকা পালন করছে। এরআগে গত ১৫ ডিসেম্বর মুম্বাই শহর হতে ৪৯ ভিকটিম (ক্ষতিগ্রস্ত) নারীকে দেশে প্রত্যাবর্তন করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: