২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

যশোরের এসএম সুলতান ফাইন আর্ট কলেজ সরকারীকরণ দাবি


স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ প্রতিষ্ঠার একযুগ পার হয়ে গেলেও জোটেনি সরকারী কোন সহায়তা। এ অবস্থায় চরম অর্থ কষ্টে ভুগছেন এ কলেজের শিক্ষক-কর্মচারীরা। তারা বলছেন-একযুগ অপেক্ষার পরেও যখন কোন আশার আলো দেখা গেল না তাহলে আর হয়তো এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যাবে না। চারুকলা শিক্ষা-বিস্তারের জন্য দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একমাত্র বিদ্যাপীঠটি অবিলম্বে সরকারীকরণের জোর দাবি জানিয়েছেন যশোরবাসী। যশোর উপ-শহরের উত্তরপ্রান্তে লেক আর সবুজ বেষ্টনীর মাঝে এক মনোরম পরিবেশে গত ২০০২ সালে এক একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠা করা হয় যশোর এসএম সুলতান ফাইন আর্ট কলেজ। শিক্ষানুরাগী আর শিল্পকলার প্রতি আকৃষ্ট শহরের সৃষ্টিশীল কিছু মানুষের আন্তরিকতায় গড়ে ওঠে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। প্রথম অবস্থায় টিনের ছাউনি আর ইটের গাঁথুনি দিয়ে নির্মিত হয় শিক্ষা কার্যক্রম চালানোর মতো একটি বিল্ডিং। সবার আশা ছিল দেশের দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলে যেহেত চারুকলা শিক্ষার জন্য কোন আর্ট কলেজ নেই, তাই অল্প দিনেই সরকারী সুদৃষ্টি মিলবে। এ আশায় অনেক শিক্ষক-কর্মচারীও যোগ দেন এখানে। ভর্তি হতে থাকে শিক্ষার্থীরাও। ভর্তির পর পরীক্ষার ফলাফল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অনেক ভাল।

কলেজের অধ্যক্ষ শামীম ইকবাল জানান, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এ কলেজে কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীরা আন্তরিকতার সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। যে কারণে কলেজটি ফলাফলেও সাফল্য দেখায়। ইতোমধ্যে কলেজটি জাতীয় বিশ্বদ্যিালয়ে অধিভুক্ত হয়েছে। ৫ বছর মেয়াদী স্নাতক কোর্স সম্পন্ন করে ৪টি ব্যাচ বেরিয়েও গেছে। প্রতিবছরই জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বিভিন্ন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে বোর্ডের প্রথম স্থানসহ শীর্ষ ১০টি স্থান দখল করার নজির রয়েছে বহুবার। তাদের অনেকে এখন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে উপার্জন করছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমাদের শিক্ষক-কর্মচারীরা থাকছেন অর্থকষ্টে। তিনি জানান, বর্তমানে এ কলেজে ১০ জন শিক্ষক, ৫ জন কর্মচারী আর শতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছেন। শিক্ষক-কর্মচারীরা অনেকটা বিনা সম্মানিতেই পাঠদান করছেন। কিন্তু এভাবে কতদিন তাদের ধরে রাখা যাবে। ইতিমধ্যে অনেক শিক্ষক অন্যত্র চলে গেছে। এদিকে শিক্ষার্থীরা জানান, তাদের কলেজটি মনোরম পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত হলেও কোন সীমানা প্রাচীর নেই। শিক্ষার মানের দিক থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য চারুকলা কলেজের চেয়ে এসএম সুলতান ফাইন আর্ট কলেজর অবস্থা অনেক ভাল।